ব্রেকিং:
দেশের খাদ্য-পুষ্টির চাহিদা পূরণে উদ্ভিদের গুরুত্ব অপরিসীম পাকিস্তান সফরে টাইগারদের দল ঘোষণা এক ফুলকপিতে ১০ মারাত্মক রোগ মুক্তি! বিশ্বের সবচেয়ে বড় কেক, দৈর্ঘ্যে সাড়ে ছয় কিলোমিটার! কেরানীর হাতে শিক্ষক-শিক্ষিকা লাঞ্ছিত প্রতাপগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে নতুন বিজ্ঞান ভবন খাল থেকে মাটি উত্তোলন, ৫টি গাড়ি জব্দ ব্রেকআপের আগে নিজেকে অবশ্যই চারটি প্রশ্ন করুন সিপিপির স্বেচ্ছাসেবকদের মধ্যে সাংকেতিক যন্ত্রপাতি বিতরণ ‘বিএনপি ইভিএম নিয়ে বিষোদগার করছে’ ‘এক বছরে বিমানে লাভ ২৭৩ কোটি টাকা’ রেমিটেন্সে নতুন রেকর্ড, ১৫ দিনেই ১ বিলিয়ন দূর্গম চরেও ঠাঁই হচ্ছেনা ভূমিহীনদের ইতিহাসের এ দিনে (১৮ জানুয়ারি) দুই অধ্যক্ষকে বিএনসিসি’র গার্ড অব অনার পত্রিকা বিক্রেতার সহযোগীতায় এগিয়ে এলো আমাদের লক্ষ্মীপুর সাংবাদিক দম্পতিকে মারধরের ঘটনায় আল্টিমেটাম ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৮ সদস্যের অনাস্থা গ্রামপুলিশদের মাঝে টর্চ লাইট ও কম্বল বিতরণ ফেরি সংকটে আটকা পাঁচ শতাধিক যানবাহন

রোববার   ১৯ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৫ ১৪২৬   ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

৬৩০

ইউপি চেয়ারম্যানের ওপর হামলার বিচার চেয়ে মানববন্ধন

প্রকাশিত: ৪ ডিসেম্বর ২০১৯  

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে আ’লীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা শহিদ উল্ল্যাহ বিএসসির ওপর হামলাকারীদের শাস্তির দাবী ও তার ছেলে উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক ও জেলা পরিষদ সদস্য মঞ্জুর হোসেন সুমনের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মিথ্যা হত্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে মানববন্ধন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) বিকালে উপজেলার হায়দরগঞ্জ বাজারে প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী এ মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন স্থানীয় রাজনীতিবিদ, মুক্তিযোদ্ধাসহ সর্বস্তরের জনতা। এসময় বাজারের ব্যবসায়ীরাও দোকানপাট বন্ধ করে মানববন্ধন কর্মসূচীতে অংশ নেয়।

নিহত মনু মিয়ার বড় ভাই চুন্নু, আব্দুর রবসহ কয়েকজন জানান, জেলা আ’লীগের সাবেক সহ-সভাপতি ও উত্তর চর আবাবিল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা শহিদ উল্ল্যাহ বিএসসিকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার উপর হামলা চালায় যুবলীগ নামধারী মনু, নাদিম, শুক্কুর ও সোহেলসহ কয়েকজন সন্ত্রাসী।

এসময় স্থানীয়রা গণপিটুনি দিয়ে মনুকে পুলিশে সোপর্দ করে। ঘটনার পরদিন চেয়ারম্যানের ছেলে সুমন বাদী হয়ে ৭ জনের নাম উল্লেখ করে রায়পুর থানায় মামলা দায়ের করেন। ঘটনার চারদিন পর মনু মারা গেলে যুবলীগ নেতা সুমনকে জড়িয়ে একটি মিথ্যা হত্যা মামলা দায়ের করা হয়। এঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে যুবলীগ নেতা সুমনের বিরুদ্ধে আনিত মামলা প্রত্যাহারসহ ইউপি চেয়ারম্যানের উপর হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান তারা।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, মুক্তিযোদ্ধা আমানত উল্ল্যাহ, স্থানীয় যুবলীগ নেতা মনির হোসেন, নিহত মনু মিয়ার ভাই চুন্নু, আব্দুর রবসহ কয়েকজন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা, ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক নেতা।

উল্লেখ্য, অভ্যন্তরীন বিরোধের জের ধরে ২০১৫ সালের ১৩ মার্চ সকালে হায়দরগঞ্জ বাজারস্থ ইউপি কার্যালয়ের সামনে হত্যার উদ্দেশ্যে মনু মিয়া নাদিম, শুক্কুর ও সোহেলসহ কয়েকজন সন্ত্রাসী হামলা চালায়।

এসময় স্থানীয়রা মনু মিয়াকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। অন্যরা পালিয়ে যায়। ঘটনার চারদিন পর মনু মারা যাওয়ার পর তার ভাগিনা নাজিম উদ্দিন বাদী হয়ে যুবলীগ নেতা সুমনকে প্রধান আসামি করে রায়পুর থানায় মামলা দায়ের করেন।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//