ব্রেকিং:
স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে প্রতারণা লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে প্রবাসীর মৃত্যু! লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলেন নির্বাহী কর্মকর্তা লক্ষ্মীপুরে করোনা রোগী ৩৭ জন : নতুন করে শিশুসহ আক্রান্ত ৩ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের মারা যাওয়া তরুণের করোনা নেগেটিভ, তিন ভাই বোনের পজেটিভ লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল এডভোকেট নয়ন লক্ষ্মীপুরে ত্রাণের সাথে ঘরও পেল লুজি মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ বিভিন্ন থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের ভিডিও কনফারেন্স লক্ষ্মীপুরে আরো ৩ জনের করোনা পজেটিভ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? লক্ষ্মীপুরে ধান কেটে কৃষকের ঘরে পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ লক্ষ্মীপুরে ২০০০ পরিবার পেল উপহার সামগ্রী কমলনগরে করোনা উপসর্গে একজনের মৃত্যু, এক বাড়ি লকডাউন ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিলো ছাত্রলীগ, কৃষকের মুখে হাসি ভবানীগঞ্জে কর্মহীন পরিবহণ শ্রমিকদের মাঝে সদর এমপি’র ত্রাণ বিতরণ করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়ালো
  • বৃহস্পতিবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ১৫ ১৪২৭

  • || ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

এশিয়ায় সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি হবে বাংলাদেশে: এডিবি

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ৩ এপ্রিল ২০২০  

করোনাভাইরাসের মহামারির চ্যালেঞ্জ যথাযথভাবে মোকাবিলা করতে পারলে চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশের অর্থনীতির প্রবৃদ্ধি জোরালোই থাকবে বলে মনে করছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। ২০১৯-২০ অর্থবছরে বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি আগের বছরের চেয়ে কিছুটা কমে ৭ দশমিক ৮ শতাংশ হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে সংস্থাটি। যা করোনার পরিস্থিতির মধ্যে এটি একটি সুখবর।

শুক্রবার প্রকাশিত এডিবির এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট আউটলুক-২০২০ এর পূর্বাভাসে এ তথ্য দেয়া হয়েছে। এডিবির মতে, করোনাভাইরাসের কারণে বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্যঝুঁকি তৈরি হয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে বিশ্ব অর্থনীতিতে।

এডিবির তথ্যমতে, এশিয়ার গড় প্রবৃদ্ধি ব্যাপকভাবে কমে যেতে পারে। ২০২০ সালে এশিয়ার গড় প্রবৃদ্ধি ২ দশমিক ২ শতাংশ হবে বলে মনে করছে সংস্থাটি। গতবছর গড়ে ৫ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছিল এশিয়ায়।

এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে চীন ২ দশমিক ৩ শতাংশ, ভারতে ৪ শতাংশ, ভিয়েতনামে ৪ দশমিক ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হতে পারে বলে পূর্বাভাস দিয়েছে এডিবি। পূর্ব এশিয়ার দেশগুলো বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছে এডিবি।

করোনাভাইরাসের আগে চলতি অর্থবছরের প্রথম আট মাসে বাংলাদেশের অর্থনীতি ভালো করেছে জানিয়ে এডিবি বলেছে- রেমিট্যান্সের কারণে অভ্যন্তরীণ চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছিল। সরকারের ব্যয় বৃদ্ধি, তরলীকৃত গ্যাস, তেল ও কন্সট্রাকশন পণ্যের আমদানি বৃদ্ধি, অধিক বিদ্যুৎ উৎপাদন ও রফতানিতে সরকারের প্রণোদনার জন্য অভ্যন্তরীণ চাহিদা বৃদ্ধি পেয়েছিল। তবে করোনা মহামারির কারণে রফতানি চাহিদা, অভ্যন্তরীণ ভোগ ও রেমিট্যান্স কমবে বলে জানিয়েছে এডিবি।

চলতি অর্থবছরে ৮ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছে সরকার। আর গত অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি হয়েছিল ৮ দশমিক ১৩ শতাংশ।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
//