ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে প্রবাসীর মৃত্যু! লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলেন নির্বাহী কর্মকর্তা লক্ষ্মীপুরে করোনা রোগী ৩৭ জন : নতুন করে শিশুসহ আক্রান্ত ৩ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের মারা যাওয়া তরুণের করোনা নেগেটিভ, তিন ভাই বোনের পজেটিভ লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল এডভোকেট নয়ন লক্ষ্মীপুরে ত্রাণের সাথে ঘরও পেল লুজি মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ বিভিন্ন থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের ভিডিও কনফারেন্স লক্ষ্মীপুরে আরো ৩ জনের করোনা পজেটিভ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? লক্ষ্মীপুরে ধান কেটে কৃষকের ঘরে পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ লক্ষ্মীপুরে ২০০০ পরিবার পেল উপহার সামগ্রী কমলনগরে করোনা উপসর্গে একজনের মৃত্যু, এক বাড়ি লকডাউন ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিলো ছাত্রলীগ, কৃষকের মুখে হাসি ভবানীগঞ্জে কর্মহীন পরিবহণ শ্রমিকদের মাঝে সদর এমপি’র ত্রাণ বিতরণ করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়ালো লক্ষ্মীপুরে লকডাউন অবস্থায় অসুস্থ যুবকের মৃত্যু : নমুনা সংগ্রহ
  • মঙ্গলবার   ০৭ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৩ ১৪২৭

  • || ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪১

৪২৬

করোনার সর্বশেষ পরিস্থিতি: মৃত ৬৫১৮ ও সুস্থ ৭৭৭৭৬

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০২০  

করোনা আতঙ্কে কাঁপছে পুরো বিশ্ব। মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া এ ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছে বিশ্বের প্রায় ১৫৭টি দেশ ও অঞ্চল। করোনা মোকাবিলায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপজুড়ে সব স্কুল, বিনোদন স্থান ও ক্রীড়া ক্লাবগুলো বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশগুলো।

কভিড-১৯ নামে পরিচিত এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী ৬ হাজার ৫১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন এক লাখ ৬৯ হাজার ৬১০ জন। এছাড়া এ ভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৭৭ হাজার ৭৭৬ জন। এদের মধ্যে শুধুমাত্র চীনেই আক্রান্ত ৮০ হাজার ৮৬০ জন। মৃত্যু হয়েছে তিন হাজার ২১৩ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৬৭ হাজার ৭৫৮ জন।

নিউইয়র্ক সিটির সব স্কুল আগামী সোমবার থেকে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। সিটি মেয়র বিল ডি ব্লাজিও রোববার এ তথ্য জানিয়েছেন। মঙ্গলবার থেকে সেখানকার সব স্কুলের ক্লাসগুলো অনলাইনের মাধ্যমে পরিচালনা করা হবে। এদিকে চীনের পরে করোনা সর্বাধিক প্রকোপ ফেলেছে ইউরোপের দেশ ইতালিতে। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আরো ৩৬৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে এক হাজার ৮০৯ জনে দাঁড়িয়েছে।

ইরান এক ঘোষণায় জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে নতুন করে আরো ১০০ জনের করোনায় মৃত্যু হয়েছে। দেশটি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের নিষধাজ্ঞার কারণে এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের বিরুদ্ধে লড়াই করতে মারাত্মকভাবে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে তারা। শনিবার বিশ্বের কয়েকটি দেশের শীর্ষ নেতাদের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে করোনা মোকাবিলায় আন্তর্জাতিক সহযোগিতার আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি।

চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া এ প্রাদুর্ভাবে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা হ্রাস পাচ্ছে। তবে বৃদ্ধি পেয়েছে অন্যান্য কয়েকটি দেশে। চীনে নতুন করে ১৬ জন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। নতুন করে মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের। এ বিষয়টি একদিকে যেমন আশার আলো দেখাচ্ছে, অন্যদিকে দক্ষিণ কোরিয়া ও ইতালিতে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি সৃষ্টি করছে আতঙ্কের। ইউরোপীয় দেশগুলো থেকে আসা যাত্রীদের জন্য বিশেষ স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা বাড়িয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া।

এদিকে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে খাবারের দোকান ও ফার্মেসি ছাড়া সব শপিং মল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সৌদি সরকার। রেস্তোরাঁ ও ক্যাফেতে খাবার পরিবেশন নিষিদ্ধ করলেও বাইরে খাবার সরবারহের অনুমতি দেয়া হয়েছে। এছাড়া দেশটিতে বিয়েসহ সব ধরনের জনসমাবেশ স্থগিত রাখার ঘোষণা দেয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার জন্য শপিং মলগুলোর ভেতর ও বাইরে বিনোদনমূলক এবং খেলাধুলার জায়গাগুলো অস্থায়ীভাবে বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার।

জাপানে নোঙ্গর করা প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেসের ৬৯৬ যাত্রী এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের। জার্মানিতে এ ভাইরাসে এক হাজার ৫ হাজার ৮১৩ জন আক্রান্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে ১৩ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ১৩ জন। ফ্রান্সে ২ হাজার ৫ হাজার ৪২৩ জন আক্রান্ত হয়েছে, মারা গেছে ১২৭ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১২ জন। জাপানে আক্রান্ত হয়েছে ৮৩৯ জন, মৃত্যু হয়েছে ২৪ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ১৪৪ জন।

স্পেনে আক্রান্ত ৭ হাজার ৮৪৫ জন, মৃত্যু হয়েছে ২৯২ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৫১৭ জন। যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত এক হাজার ৩ হাজার ৭৮২ জন, মৃত্যু হয়েছে ৬৯ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৩ জন। সুইজারল্যান্ডে আক্রান্ত ২ হাজার ২১৭ জন, মারা গেছে ১৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন চার জন। যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত এক হাজার ৩৯৭ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩৫ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৩ জন। ইরাকে আক্রান্ত ১২৪ জন, মৃত্যু হয়েছে ১০ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ২৬ জন। ভারতে আক্রান্ত হয়েছে ১১৪ জন, মৃত্যু হয়েছে দুই জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ১৩ জন।

সুইডেনে আক্রান্ত এক হাজার ৪০ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন একজন। সিঙ্গাপুরে ২২৬ জন আক্রান্ত, সুস্থ হয়েছেন ১০৫ জন। নেদারল্যান্ডসে আক্রান্ত ৫০৩ জন, মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের। নরওয়েতে আক্রান্ত এক হাজার ২৫৬ জন, মৃত্যু হয়েছে তিন জনের এবং সুস্থ হয়েছেন একজন। বেলজিয়ামে আক্রান্ত ৮৮৬ জন, মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন একজন। হংকংয়ে আক্রান্ত ১৪৯ জন, মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৮১ জন। মালয়েশিয়ায় আক্রান্ত ৪২৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৪২ জন। অস্ট্রিয়ায় আক্রান্ত ৮৬০ জন, মৃত্যু হয়েছে একজনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৬ জন। অস্ট্রেলিয়ায় আক্রান্ত ৩০০ জন, মৃত্যু হয়েছে ৫ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ২৭ জন। বাহরাইনে আক্রান্ত ২১৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৭৭ জন।

কুয়েতে আক্রান্ত ১১২, সুস্থ হয়েছেন ৯ জন। কানাডায় আক্রান্ত ৩৪১ জন, মৃত্যু হয়েছে একজনের এবং সুস্থ হয়েছেন ১১ জন। থাইল্যান্ডে আক্রান্ত ১১৪ জন, মৃত্যু হয়েছে একজনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৩৫ জন। তাইওয়ানে আক্রান্ত ৫৯ জন, মৃত্যু হয়েছে একজনের এবং সুস্থ হয়েছেন ২০ জন। গ্রিসে আক্রান্ত ৩৩১ জন, মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৮ জন। সংযুক্ত আরব আমিরাতে ৯৮ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২৩ জন।

আইসল্যান্ডে আক্রান্ত ১৮০ জন, সান মারিনোতে আক্রান্ত ১০৯ জন, মৃত্যু হয়েছে ৭ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৪ জন। ডেনমার্কে আক্রান্ত ৮৬৪ জন, মৃত্যু হয়েছে ২ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন একজন। লেবাননে আক্রান্ত ১১০ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের এবং সুস্থ হয়েছে ২ জন। ইসরায়েলে আক্রান্ত ২১৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৪ জন। আয়ারল্যান্ডে আক্রান্ত ১৭০ জন, মৃত্যু হয়েছে ২ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন একজন। আলজেরিয়াতে আক্রান্ত ৫৪ জন, মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ১০ জন।  ভিয়েতনামে ৫৭ জন এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং সুস্থ হয়েছে ১৬ জন।

ওমানে আক্রান্ত ২২ জন এবং ৯ জন সুস্থ হয়েছেন। ফিলিস্তিনে আক্রান্ত ৩৮, মিসরে ১২৬ জন আক্রান্ত, মৃত্যু হয়েছে ২ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৩২ জন। ফিনল্যান্ডে আক্রান্ত ২৪৪ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১০ জন। ব্রাজিলে আক্রান্ত ২০০ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ জন। পর্তুগালে ২৪৫ জন আক্রান্ত এবং সুস্থ হয়েছেন ৩ জন। রাশিয়াতে আক্রান্ত ৬৩ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৮ জন।

ক্রোয়েশিয়ায় আক্রান্ত ৪৯ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ২ জন। কাতারে আক্রান্ত ৪০১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ৪ জন। ম্যাকাউতে আক্রান্ত ১১ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১০ জন। আর্জেন্টিনায় আক্রান্ত ৫৬ জন, মৃত্যু হয়েছে ২ জনের এবং সুস্থ হয়েছেন ৩ জন। স্লোভেনিয়ায় আক্রান্ত ২১৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে একজনের। লুক্সেমবার্গে আক্রান্ত ৭৭, মৃত্যু হয়েছে একজনের।

এর আগে গত ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরের একটি সামুদ্রিক বাজার থেকে করোনার প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়ে। এর পড়ে সেটি পুরো বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর
//