ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে প্রবাসীর মৃত্যু! লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলেন নির্বাহী কর্মকর্তা লক্ষ্মীপুরে করোনা রোগী ৩৭ জন : নতুন করে শিশুসহ আক্রান্ত ৩ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের মারা যাওয়া তরুণের করোনা নেগেটিভ, তিন ভাই বোনের পজেটিভ লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল এডভোকেট নয়ন লক্ষ্মীপুরে ত্রাণের সাথে ঘরও পেল লুজি মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ বিভিন্ন থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের ভিডিও কনফারেন্স লক্ষ্মীপুরে আরো ৩ জনের করোনা পজেটিভ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? লক্ষ্মীপুরে ধান কেটে কৃষকের ঘরে পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ লক্ষ্মীপুরে ২০০০ পরিবার পেল উপহার সামগ্রী কমলনগরে করোনা উপসর্গে একজনের মৃত্যু, এক বাড়ি লকডাউন ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিলো ছাত্রলীগ, কৃষকের মুখে হাসি ভবানীগঞ্জে কর্মহীন পরিবহণ শ্রমিকদের মাঝে সদর এমপি’র ত্রাণ বিতরণ করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়ালো লক্ষ্মীপুরে লকডাউন অবস্থায় অসুস্থ যুবকের মৃত্যু : নমুনা সংগ্রহ
  • শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৬ ১৪২৭

  • || ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

১৪২

চীনে পোড়ানো হচ্ছে করোনাভাইরাস রোগী!

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

করোনাভাইরাস বিস্তারের কেন্দ্রভূমি চীনের উহানে উচ্চমাত্রার সালফার ডাইঅক্সাইডের ব্যাপক উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। এটি দেশটিতে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীদের মরদেহ পুড়িয়ে মারার আভাস দিচ্ছে বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে দাবি করা হয়েছে।

সাম্প্রতিক উপগ্রহ থেকে নেয়া মানচিত্রে দেখা গেছে, উহানের চারপাশে এসও২-এর উপস্থিতি উদ্বেগজনকহারে বেড়েছে। এ ছাড়া কোয়ারেন্টিনের অধীনে থাকা চোংকিং শহরেও উচ্চমাত্রার সালফার ডাইঅক্সাইডের উপস্থিতি রয়েছে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, মরদেহ পুড়িয়ে ফেলার সময় সালফার ডাইঅক্সাইড উৎপাদিত হয়। এ ছাড়া মেডিকেল বর্জ্য ভস্মীভূত করলেও এমনটি ঘটে।

কিন্তু সামাজিকমাধ্যম ব্যবহারকারীরা মানচিত্র পর্যালোচনা করে বলছেন, শহরের প্রান্তেই মরদেহগুলো পুড়িয়ে ফেলা হতে পারে।

বড় জমায়েত এড়িয়ে চলতে অল্পসংখ্যক লোকের উপস্থিতিতে মরদেহ পুড়িয়ে ফেলতে নির্দেশ দিয়েছে চীন সরকার। দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন বলছে, যথাসম্ভব দ্রুত সময়ে লাশগুলো ভস্মীভূত করে ফেলতে হবে, যাতে করে ভাইরাস না ছড়ায়।

কিন্তু বারবার দাবি করা হচ্ছে যে, ব্যাপক গণভস্মীভূতকরণের মধ্য দিয়ে মৃতের সংখ্যা লুকাচ্ছে চীন সরকার। ব্যাপকসংখ্যক মরদেহ ভস্মীভূত করার সঙ্গে উহানের অতিমাত্রায় সালফার ডাইঅক্সাইডের উপস্থিতির একটি সম্পর্ক থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

সোমবারেও উহানের অধিকাংশ স্থানে প্রতি ঘনমিটারে ৫০০ মাইক্রোগ্রামের বেশি সালফার ডাইঅক্সাইডের উপস্থিতি দেখা গেছে।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, মরদেহ ভস্মীভূতকরণে এসও২-এর পাশাপাশি নাইট্রোজেন অক্সাইডের মতো দূষণও ছড়িয়ে পড়ে।

এক কোটি ১০ লাখ লোকের শহর উহানকে বিচ্ছিন্ন করে অচল করে দেয়া হয়েছে। কাজেই সেখান থেকে আসা সব খবরের সত্যাসত্য যাচাই করা সহজ না। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, অতিমাত্রায় ও দীর্ঘ সময় সালফার ডাইঅক্সাইডের উপস্থিতি স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর
//