ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে প্রবাসীর মৃত্যু! লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলেন নির্বাহী কর্মকর্তা লক্ষ্মীপুরে করোনা রোগী ৩৭ জন : নতুন করে শিশুসহ আক্রান্ত ৩ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের মারা যাওয়া তরুণের করোনা নেগেটিভ, তিন ভাই বোনের পজেটিভ লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল এডভোকেট নয়ন লক্ষ্মীপুরে ত্রাণের সাথে ঘরও পেল লুজি মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ বিভিন্ন থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের ভিডিও কনফারেন্স লক্ষ্মীপুরে আরো ৩ জনের করোনা পজেটিভ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? লক্ষ্মীপুরে ধান কেটে কৃষকের ঘরে পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ লক্ষ্মীপুরে ২০০০ পরিবার পেল উপহার সামগ্রী কমলনগরে করোনা উপসর্গে একজনের মৃত্যু, এক বাড়ি লকডাউন ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিলো ছাত্রলীগ, কৃষকের মুখে হাসি ভবানীগঞ্জে কর্মহীন পরিবহণ শ্রমিকদের মাঝে সদর এমপি’র ত্রাণ বিতরণ করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়ালো লক্ষ্মীপুরে লকডাউন অবস্থায় অসুস্থ যুবকের মৃত্যু : নমুনা সংগ্রহ
  • শুক্রবার   ০৭ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৩ ১৪২৭

  • || ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

১২৭

চুরি ঠেকাতে দিন-রাত পেঁয়াজ ক্ষেতে

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ৭ ডিসেম্বর ২০১৯  

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পেঁয়াজ ক্ষেতগুলোতে বেড়েছে চোরের উপদ্রব। তাই বহুমূল্য পেঁয়াজ রক্ষায় পাহারা দিচ্ছেন চাষিরা। তাদের দিনরাত কাটছে পেঁয়াজ ক্ষেতেই।

জেলার পেঁয়াজ চাষিরা জানান, বেশি দামের আশায় দুই মাস আগে তারা আগাম জাতের পেঁয়াজের বীজ রোপণ করেছিলেন। ২০-২৫ দিনের মধ্যেই পেঁয়াজগুলো ঘরে তোলার উপযোগী হবে। এর মধ্যেই বিভিন্ন এলাকায় পেঁয়াজ ক্ষেতে চোরের উপদ্রব বেড়েছে। তাই চুরি ঠেকাতে দিনরাত ক্ষেতে পাহারা দিচ্ছেন চাষিরা।

সদর উপজেলার হায়াতমোড় গ্রামের পেঁয়াজ চাষি আমিরুল হক জানান, আগাম পেঁয়াজের দাম বেশি। এবার তিনি দুই বিঘা জমিতে পেঁয়াজ চাষ করেছেন। প্রতি বিঘা জমিতে ৩০-৪০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। তবে এবার পেঁয়াজের ফলন বেশ ভালো। কিন্তু এত কষ্টের ফসল চুরি হলে পথে বসবেন পেঁয়াজ চাষিরা।

একই গ্রামের আরেক চাষি রুবেল মিয়া বলেন, এবার পেঁয়াজের দাম বেশি হওয়ায় চোরের নজর পেঁয়াজ ক্ষেতে পড়েছে। বুধবার রাতে আমার দেড় বিঘা জমির পেঁয়াজ চুরি করে নিয়ে গেছে। তাই পাহারা দিচ্ছি।

ওই গ্রামের চাষি মিনহাজুল আতিক জানান, গত বছর চার বিঘা জমিতে পেঁয়াজ চাষ করে লোকসানের মুখে পড়েছিলাম। তাই এবার মাত্র ১৭ কাঠা জমিতে আগাম জাতের পেঁয়াজ চাষ করেছি। কিন্তু এই সামান্য জমির পেঁয়াজও চোরের কারণে ঘরে তুলতে পারছি না। পাহারার পরও চুরি ঠেকানো যাচ্ছে না।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মঞ্জুরুল হুদা জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জের মাটি ও আবহাওয়া পেঁয়াজ চাষের উপযোগী। এ বছর জেলায় আগাম জাতের পেঁয়াজ চাষ হয়েছে ৪০৫ হেক্টর জমিতে। লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে পাঁচ হাজার ২৭৮ মেট্রিক টন। চুরি ঠেকানো সম্ভব হলে পেঁয়াজের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
ইত্যাদি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর
//