ব্রেকিং:
রামগঞ্জে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে স্কুল ছাত্রকে পিটিয়ে জখম রামগঞ্জের ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা, তদন্তে পিবিআই লক্ষ্মীপুরে আইনজীবি সহকারিদের মানববন্ধন যুব সমাজের উদ্যেগে গ্রামের রাস্তায় বাতির ব্যবস্থা। বৈধ সড়কে অবৈধ ভাবে চলছে সড়কের শত্রু দৈত্যাকৃতির দানব গাড়ী লাহারকান্দীতে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রের শুভ উদ্বোধন কমলনগরে নারী ইউপি মেম্বারের ঘরে অসামাজিক কাজ, আটক-৮ প্রজনন ক্ষমতা কমায় কয়েলের ধোঁয়া! হজ পালন করতে সাইকেল চালিয়ে মক্কায় ১১ বছরের গ্যাস মজুত আছে: সংসদে নসরুল ইসরায়েলের বিরুদ্ধে খুতবা, আল আকসার খতিব বরখাস্ত ফের মার্কিন দূতাবাসের কাছে ৩ দফায় রকেট হামলা চিকিৎসক-ডিগ্রি লাগাতে বিএমডিসির অনুমোদন লাগবে: হাইকোর্ট শেখ হাসিনা হত্যাচেষ্টায় পাঁচ জনের মৃত্যুদণ্ড লক্ষ্মীপুরে আবারও শ্রেষ্ঠ ওসি একেএম আজিজুর রহমান মিয়া কমলনগরে জোরপূর্বক স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিলেন যুবলীগ নেতা, সরকারি স্কুলে অযত্নে-অবহেলায় বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি লক্ষ্মীপুর হলি গার্লস স্কুলে পিঠা উৎসব ভারতেও ছড়াতে পারে চীনের ভাইরাস

বুধবার   ২২ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৮ ১৪২৬   ২৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

৪১০৩

ছেলে চাকরিজীবী তবুও ঝাড়ু হাতে রাস্তায় মা

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

সবাই যখন গভীর নিদ্রায় মগ্ন তখন ঝাড়ু হাতে নেমে পড়েন আজিরন। রাজশাহী নগরীর ব্যস্ততম এলাকা লক্ষ্মীপুর-সিঅ্যান্ডবি সড়কে প্রতি রাতে ঝাড়ু হাতে নেমে পড়েন তিনি। ২৫ বছর ধরেই এ কাজ করে আসছেন তিনি। কি শীত, কি বর্ষা! বালিশ, কম্বল নয় ঝাড়ুই তার রাতের নিত্যদিনের সঙ্গী।

রাস্তা ঝাড়ু দিয়ে যে আয় হয় তা দিয়ে দুই ছেলেকে মানুষ করেছেন। বড় ছেলে জনি আহম্মেদকে উচ্চমাধ্যমিক পাস করিয়েছেন। সেই ছেলে এখন একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে ভালো রোজগার করছেন। তবু খোলেনি আজিরনের ভাগ্যেরা চাকা। ঝাড়ু একদিনের জন্যেও ছাড়েনি তাকে।

জানা গেছে, ছেলে বিয়ে করে আলাদা সংসার করছেন। মায়ের কোনো খোঁজ নিচ্ছেন না। ২৫ বছর আগে স্বামীর কাছে নির্যাতিত হয়ে দুই ছেলে জনি ও মনাকে নিয়ে মায়ের বাড়ি নগরীর বাগানপাড়া রেললাইন বস্তিতে উঠেছিলেন। সেসময় অন্যের বাড়ি ও ছাত্রাবাসে রান্না করে একাই পুরো সংসার চালাতেন আজিরন। তাতেও যখন হচ্ছিল না তখন একটি ওষুধ কোম্পানিতে কাজ নেন।

দিনরাত দুই চাকরি করে একমাত্র উপার্যনক্ষম সদস্য হয়ে সংসারকে আগলে রেখেছেন তিনি। একসময় এলাকার এক স্বহৃদয়বান ব্যক্তির সাহায্যে দৈনিক মজুরিতে নগরীর ওয়ার্ডে পরিচ্ছন্নতাকর্মী হিসেবে কাজ পান আজিরন। সেই থেকে ঝাড়ুই তার জীবন চাকার অবলম্বন। সেই চাকরি আজও স্থায়ী হয়নি। সে আশায় ২৫ বছর ধরে কর্তৃপক্ষের দিকে তাকিয়ে আজিরন।

রাসিকের প্রধান পরিচ্ছন্নতা কর্মকর্তা শেখ মো. মামুন জানিয়েছেন, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ৩০ ওয়ার্ডজুড়ে ঝাড়ুদার ২৯৩ জন রয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে তারা এ কাজের সঙ্গে যুক্ত। তবে এদের চাকরি স্থায়ী হয়নি আজ অবধি।

চাকরি স্থায়ীকরণের পাশাপাশি আজিরন চেয়ে আছেন ছোট ছেলের মনার দিকে। তাকেও বড় ছেলের মতো পড়া লেখা শিখিয়েছেন। বড় ছেলে নিজের পথ বেঁছে নিয়েছে। এবার ছোট ছেলে মেহেদি হাসান মনা মায়ের কাঁধ থেকে ২৫ বছরের সংসারের বোঝা সরাবে কিনা তাই দেখার বিষয়। নাকি আজিরনকে ঝাড়ু হাতেই দিনরাত লক্ষ্মীপুর-সিঅ্যান্ডবি সড়কে দেখা যেতে থাকবে প্রতিদিনের মতো।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//