ব্রেকিং:
প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্ব ক্যারমে পঞ্চম হেমায়েত মোল্লা বিয়ের আগে একমাত্র কন্যাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ মিথিলার চর মার্টিনে নেতৃত্বে আসতে চান বেলায়েত সকল সমুদ্র বন্দরের সংযোগ নেটওর্য়াক হবে ভোলা-লক্ষ্মীপুর সেতু লক্ষ্মীপুরে গুলিবিদ্ধ দুই যুবকের মরদেহ উদ্ধার লক্ষ্মীপুরে প্রতিবন্ধী দিবসে র‌্যালি ও সভা রামগঞ্জ উপজেলা শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক শামছুল ইসলাম প্রতিবন্ধীদের নিয়ে ‘নেতিবাচক মানসিকতা’ পরিহার করুন: প্রধানমন্ত্রী যুব গোল্ডকাপ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট উদ্বোধন ১৫ ডিসেম্বর থেকে ই-পাসপোর্ট চালু: পররাষ্ট্রমন্ত্রী কৃষিজাত পণ্য রফতানি করতে চাই: কৃষিমন্ত্রী গণতন্ত্র মুক্তি দিবস আজ সন্ধ্যায় সৃজিত-মিথিলার বিয়ে কাঁচা মাছ, মাংস, লতাপাতা খেয়েও স্বাভাবিক আছেন অদ্ভুত এই ব্যক্তি! কাতারে বাংলাদেশি হাফেজদের কৃতিত্বপূর্ণ সাফল্য সোনা কেনার সময় যা খেয়াল রাখা খুব জরুরি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুবার্ষিকী আজ বাংলাদেশের হজ কোটা বাড়াল সৌদি আরব সেরা কে? মুখ খুললেন অনুশকা আওয়ামী লীগের ২১তম কাউন্সিল হবে সাদামাটা

শনিবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৬   ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১

‘টাকা দে, তুই অনেক সুখ পাবি’

প্রকাশিত: ২ ডিসেম্বর ২০১৯  

‘এই হিংসে করিসনে, ১০০ টাকা দে, তুই অনেক সুখ পাবি, তোর ব্যবসা ভালা হবে, বউ-প্রেমিকা তোরে ভালোবাসবে।’

নারায়ণগঞ্জ শহরের প্রধান সড়কগুলোতে এভাবেই মানুষকে হয়রানি করে টাকা নিচ্ছে বেদেনীরা। ভুক্তভোগীরা জানান, বেদেনীরা অলিতে গলিতে গিয়েও হয়রানি করে। টাকা দিতে না চাইলে কাপড়-ব্যাগ ধরে টানাটানি করে। অনেক সময় হাতাহাতিও হয়।

শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কসহ কয়েকটি সড়কে বেদেনীদের নেতৃত্ব দেন মহুয়া নামের এক তরুণী।

 

 

ব্যবসায়ীরা জানান, প্রতিদিনই ছোট ছোট সাপের বাক্স হাতে মানুষের পথ আটকে টাকার জন্য হয়রানি করে বেদেনীরা। একশ টাকার কম নিতে চায় না। এতে স্ত্রী-সন্তানদের সামনে অস্বস্তিকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়।

বঙ্গবন্ধু সড়কের বাসিন্দা পারভীন সুলতানা জানান, আগে বেদেনীরা বাসস্ট্যান্ড-দোকানে গিয়ে টাকা নিতো। এখন তারা বাসা-বাড়িতেও হানা দেয়। গেট খোলা পেলেই বাসার ভেতরে ঢুকে পড়ে।

বেদেনীদের সরদার মহুয়া বলেন, বাড়ি বাড়ি গিয়ে শিঙ্গা লাগানো, তাবিজ বিক্রি করা, ঝাড়ফুঁক করায় আগের মতো আয় হয় না। তাই পেটের দায়ে মানুষের কাছে হাত পাতছি। অন্য কোনো পেশা আমাদের নেই। কৌশল খাটিয়ে মানুষের কাছ থেকে যা পাই তা দিয়েই পরিবার নিয়ে খেয়ে পড়ে থাকি।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//