ব্রেকিং:
নতুন বছরেই আকাশে দেখা যাবে ‘ফেইক মুন’ মন্দিরে পুরোহিতের বদলে মন্ত্র পড়াচ্ছে রোবট! ভাঙনেও থেমে নেই মাটি কাটা লোভনীয় চাকরি ছেড়ে বাইক নিয়ে দেশ-বিদেশ ঘুরে বেড়াচ্ছেন তরুণী পানিতে ডুবে শিশুর করুন মৃত্যু শিশুর পানিশূন্যতার লক্ষণ ও করণীয় পাকা চুল টেনে তুলে অজান্তেই নিজের ক্ষতি করছেন? অবকাঠামো সংকটে বেহাল লক্ষ্মীপুর বিসিক রামগতিতে আগুনে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ঢেউটিন বিতরণ পেট্রোবাংলা ভবনের আগুন নিয়ন্ত্রণে রামগঞ্জে নারীর ক্ষমতায়নে উঠান বৈঠক লক্ষ্মীপুরে ৭’শ শিক্ষার্থীর অংশগ্রহণে বৃত্তি পরীক্ষা উপজেলা বিএমজিটিএ’র সম্মেলন অনুষ্ঠিত লক্ষ্মীপুরে আইডিয়াল ফাউন্ডেশনের বৃত্তি পেল ৪০০ শিক্ষার্থী চুরি ঠেকাতে দিন-রাত পেঁয়াজ ক্ষেতে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্ব ক্যারমে পঞ্চম হেমায়েত মোল্লা বিয়ের আগে একমাত্র কন্যাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ মিথিলার চর মার্টিনে নেতৃত্বে আসতে চান বেলায়েত সকল সমুদ্র বন্দরের সংযোগ নেটওর্য়াক হবে ভোলা-লক্ষ্মীপুর সেতু লক্ষ্মীপুরে গুলিবিদ্ধ দুই যুবকের মরদেহ উদ্ধার

রোববার   ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৩ ১৪২৬   ১০ রবিউস সানি ১৪৪১

৩৫

নার্সারির ছাত্রের দেখা জেএসসি’র সেই খাতা জব্দ

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০১৯  

দিনাজপুরের বিরামপুরে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার খাতা শিশুদের দিয়ে মূল্যায়ন করার অভিযোগে ১০০ খাতা জব্দ করে থানায় জমা দেয়া হয়েছে।

সোমবারের এ ঘটনার পর মঙ্গলবার দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এ সময় তিনি সংশ্লিষ্ট শিক্ষকের কাছে থাকা নার্সারি ক্লাসের ছাত্রের দ্বারা মূল্যায়নকৃত ১৫০টি খাতা জব্দ করে নিয়ে গেছেন।

বিরামপুর পৌর শহরের আদর্শ স্কুলপাড়ার বাসিন্দা ফুলবাড়ী উপজেলার জয়নগর উচ্চবিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক সাহানুর রহমান সদ্যসমাপ্ত জেএসসি পরীক্ষার ২৫০টি খাতা মূল্যায়নের জন্য দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড থেকে গ্রহণ করেন। কিন্তু তিনি নিজে খাতা মূল্যায়ন না করে প্রতিবেশী জিয়াউর রহমানের বাড়িতে ২৫০টি খাতা মূল্যায়নের জন্য দিয়ে যান।

জিয়াউর রহমানের স্ত্রী দিলরুবা বেগম বলেন, শিক্ষক সাহানুর রহমান ২৫০টি খাতার মধ্যে মূল্যায়ন শেষে ১৫০টি খাতা নিয়ে গেছেন এবং অবশিষ্ট ১০০টি খাতা পরে নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল।

দিলরুবা বেগম আরো জানান, তার জেএসসি পরীক্ষা দেয়া ছেলে অনিক ও নার্সারি পড়ুয়া শিশুছেলে আবরার ওই সব খাতা মূল্যায়ন করেছে।

গোপন সূত্রে এ খবর পাওয়ার পর বিরামপুরের ইউএনও’র প্রতিনিধি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নূর আলম ও যুব উন্নয়ন অফিসার জামিল উদ্দিন পুলিশসহ সোমবার জিয়ার বাড়ি থেকে জেএসসি পরীক্ষার ১০০টি খাতা জব্দ করে আনেন। মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নূর আলম জব্দকৃত খাতা জিডি’র মূলে থানায় জমা দিয়েছেন।

দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তোফাজ্জুর রহমান ও উপ-সচিব ড. আবদুর রাজ্জাক মঙ্গলবার খাতাগুলোর উদ্ধারস্থল পরিদর্শন ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের মতামত গ্রহণ করেন।

এ সময় তারা অভিযুক্ত শিক্ষক সাহানুর রহমানের হেফাজতে থাকা শিশু দ্বারা মূল্যায়নকৃত ১৫০টি খাতা জব্দ করে নিয়ে যান।

পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তোফাজ্জুর রহমান বলেন, জব্দকৃত খাতা অন্য শিক্ষক দ্বারা পুনরায় মূল্যায়ন করা হবে। এতে পরীক্ষার্থীদের কোনো অসুবিধা হবে না।

তিনি আরো বলেন, অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ ও আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে থানায় নিয়মিত মামলা করা হবে।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//