ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুরে আবারও শ্রেষ্ঠ ওসি একেএম আজিজুর রহমান মিয়া কমলনগরে জোরপূর্বক স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নিলেন যুবলীগ নেতা, সরকারি স্কুলে অযত্নে-অবহেলায় বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি লক্ষ্মীপুর হলি গার্লস স্কুলে পিঠা উৎসব ভারতেও ছড়াতে পারে চীনের ভাইরাস লিবিয়া সরকারের পতন ইউরোপের জন্য হুমকি: এরদোগান শহীদ আসাদ দিবস আজ ৯ ঘণ্টা পর খুলনা রুটে ট্রেন চলাচল শুরু ফাস্ট ট্র্যাক প্রকল্পের সংখ্যা বাড়াতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ ই-পাসপোর্টের জন্য প্রধানমন্ত্রীর ফটো নেয়া হয়েছে মুখোষধারীদের স্থান নেই লক্ষ্মীপুর কলেজ ছাত্রলীগে রামগঞ্জে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৮ ইউপি সদস্যের অনাস্থা মায়ের কোলে ফিরেই সুখবর পেলেন ক্রিকেটার হাসান হলি গার্লস স্কুলের পিঠা উৎসব অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সাংবাদিকের উপর হামলা কারীদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে,, সাংবাদিক দম্পত্তির ওপর হামলার ঘটনায় বিচার দাবি করছে বিএমএসএফ কমলনগরের ল্যান্স কর্পোরাল খোকনের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন মাদকসেবী ও ব্যবসায়ীদের কোন ছাড় নয় হিন্দি সিরিয়ালে আসক্তি কাটানোর দারুণ উপায় ইউক্রেনের প্লেন বিধ্বস্তের ঘটনায় নতুন তথ্য দিল রাশিয়া

সোমবার   ২০ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৭ ১৪২৬   ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

১২৮৮১

পরিবর্তন চাই নাকি উন্নয়ন?

প্রকাশিত: ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮  

পরিবর্তন চাই বলে যারা গলা ফাটাচ্ছেন তাদের জন্য কিছু কথা। বিএনপি যদি ক্ষমতায় আসে তবে তাদের কাজ কি হবে? আগামী পাঁচ বছর তারা কি করবে? চলুন জেনে নেওয়া যাক-

১ম বছরঃতাদের নেত্রী যিনি কিনা দন্ডপ্রাপ্ত হওয়ার কারনে নির্বাচনে অংশগ্রহনের বৈধতা হারিয়েছেন তাকে জেল থেকে বের করবে। এমাজউদ্দীন আহমেদ বলেছেন, বিএনপি নির্বাচিত হওয়ার ৭২ ঘন্টার ভিতরেই খালেদা জিয়াকে বের করে প্রধানমন্ত্রী বানানো হবে। দুর্নীতি, অর্থ পাচার ও সন্ত্রাসী হামলার দন্ডপ্রাপ্ত আসামী তারেক রহমানকে জামিনে লন্ডন থেকে দেশে নিয়ে আসবে। তার পর মা-ছেলে মিলে দেশ ধ্বংসের নীলনকশা তৈরীতে ব্যস্ত হয়ে পড়বে। আর দেশের উন্নয়ন? সেটা করার জন্য তো আরও ৪ বছর আছেই। 

২য় বছরঃস্বাধীনতা বিরোধী, দুর্নীতি, ধর্ষন, মাদক ব্যবসা, হত্যা, ছিনতাই,রাহাজানি ইত্যাদি মামলায় তাদের যত নেতাকর্মী জেলে আছে বা দন্ডপ্রাপ্ত হয়েছে তাদের সকলকে জামিনে মুক্ত করবে। আইন পরিবর্তন করে তাদের মুক্ত করতে করতে ১ বছর বা তার বেশী সময়ও লাগতে পারে। উন্নয়নের জন্য তো আরো তিন বছর আছেই।

৩য় বছরঃ গত দশ বছরে যে সকল নেতাকর্মী আদর্শ বিসর্জন দিয়ে আওয়ামীলীগে যোগ দিয়েছে তাদেরকে আবারও নিজেদের আদর্শে উজ্জ্বিবিত করে দলে ফিরিয়ে এনে দলকে ভারি করবে। বাকি দুই বছর দেশ নিয়ে চিন্তা করা যাবে।

৪র্থ বছরঃ নেতাদের জেল থেকে মুক্ত করতে, নেতাদের নিজ ডেরায় ফিরিয়ে আনতে তারা যে পরিমান অর্থ খরচ করেছে সেই অর্থগুলো পুনরায় নিজেদের পকেটে পুরতে তারা তাদের দিন রাত এক করে দেবে। দেশের কথা ভাবার সময় কোথায়?

৫ম বছরঃ এবার তারা চিন্তা করবে সামনে নির্বাচন, নির্বাচনের খরচ যোগাতে হবে। সেজন্য আরও বেশী করে লুটতরাজ, দুর্নীতি চালিয়ে যাবে আর হামলা,মামলা ও হত্যার মতো ঘটনা ঘটিয়ে বিরোধী শক্তিকে দমন করে পুনরায় কিভাবে ক্ষমতায় আসা যায় সেই চিন্তায় লিপ্ত থাকবে । দেশের উন্নয়ন নিয়ে ভাবার সময় কোথায়?

তাহলে দেশের কি হবে? উন্নয়নের কি হবে? দেশ এগিয়ে যাওয়ার পরিবর্তে পিছিয়ে যাবে আরও ১০ বছর।কারন বিএনপি উন্নয়ন নয় ভোগের রাজনীতিতে বিশ্বাসী।

আপনার আমার ভোটেই সরকার গঠিত হয়। কোনো দলের হয়ে চিন্তা না করে দেশের হয়ে একবার চিন্তা করে দেখুন তো, দেশের সেবা করার নামে আমরা কি দেশকে লুটেরাদের হাতে তুলে দেবো? নাকি যারা প্রকৃতপক্ষেই দেশের উন্নয়ন করতে চায় তাদেরকে আবারও সুযোগ দিবো? সিদ্ধান্ত আপনার, আমার, আমাদের নিজেদের।

আমরা দেশের উন্নয়ন চাই, দেশকে দূর্নীতিবাজদের হাতে দেখতে চাই না।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//