ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে প্রবাসীর মৃত্যু! লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলেন নির্বাহী কর্মকর্তা লক্ষ্মীপুরে করোনা রোগী ৩৭ জন : নতুন করে শিশুসহ আক্রান্ত ৩ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের মারা যাওয়া তরুণের করোনা নেগেটিভ, তিন ভাই বোনের পজেটিভ লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল এডভোকেট নয়ন লক্ষ্মীপুরে ত্রাণের সাথে ঘরও পেল লুজি মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ বিভিন্ন থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের ভিডিও কনফারেন্স লক্ষ্মীপুরে আরো ৩ জনের করোনা পজেটিভ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? লক্ষ্মীপুরে ধান কেটে কৃষকের ঘরে পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ লক্ষ্মীপুরে ২০০০ পরিবার পেল উপহার সামগ্রী কমলনগরে করোনা উপসর্গে একজনের মৃত্যু, এক বাড়ি লকডাউন ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিলো ছাত্রলীগ, কৃষকের মুখে হাসি ভবানীগঞ্জে কর্মহীন পরিবহণ শ্রমিকদের মাঝে সদর এমপি’র ত্রাণ বিতরণ করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়ালো লক্ষ্মীপুরে লকডাউন অবস্থায় অসুস্থ যুবকের মৃত্যু : নমুনা সংগ্রহ
  • বৃহস্পতিবার   ০৪ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২১ ১৪২৭

  • || ১১ শাওয়াল ১৪৪১

৬৪৯

ফ্রিল্যান্সিংয়ে সফল লক্ষ্মীপুরের কৃতি সন্তান

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ৬ অক্টোবর ২০১৯  

শিক্ষিত তরুণদের জনপ্রিয় পেশা হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং। পড়াশোনার পাশাপাশি এ পেশায় অনেকেই গড়ে নিচ্ছেন ক্যারিয়ার। তাদের মধ্যে আছেন দুলাল হোসেন ও জোবায়ের মাহমুদ। তাদের মাসিক আয় ৮০০-১০০০ ডলার।

জোবায়ের মাহমুদ

লক্ষীপুরের সন্তান জোবায়ের মাহমুদ। পড়াশোনা করেন ঢাকা কলেজের অর্থনীতি বিভাগের স্নাতক (অনার্স) চতুর্থ বর্ষে। ফ্রিল্যান্সিং শুরু করেন ২০১৫ সালে। আনিসুর রহমান নামে পরিচিত এক বড় ভাইয়ের মাধ্যমে হাতেখড়ি। বলেন তখনও ফ্রিল্যান্সিং বা অনলাইন মার্কেটপ্লেস এসব ভালো বুঝতাম না। ২০১৫ সালের শেষের দিকে ইউটিউব থেকে অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলো সম্পর্কে মোটামুটি ধারণা পাই।

২০১৬ সালের ৬ এপ্রিল প্রথম ফাইভার মার্কেটপ্লেসে আমেরিকান এক ক্লায়েন্টের স্টেশনারি ডিজাইনের একটা কাজ পাই। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। তিনমাস পর ঈদ। সেই ঈদে পরিবারের জন্য শপিং ফ্রিল্যান্সিং এর টাকায়। তখন স্বপ্নের মতোই মনে হয়েছিল সবকিছু। যেটার অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করার মতো নয়।

বর্তমানে জোবাইয়ের কাজ করছেন আমেরিকান একটি কোম্পানির ডিজাইন ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে। এছাড়াও বেশ কিছু অনলাইন মার্কেটপ্লেসে।

পড়াশোনার পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং কেমন উপভোগ করেছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, ছোটবেলা থেকেই তথ্য-প্রযুক্তি, ইন্টারনেট এগুলোর প্রতি আগ্রহ ছিল। এ জন্য বাবা-মায়ের কাছ থেকে অনেক বকাও খেয়েছি। পড়াশুনার পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং বেশ উপভোগ করছি, নিজের জন্য এবং পরিবারের জন্য কিছু করতে পারছি বলে নিজেকে ভবিষ্যতের জন্য অনেকটা চাপমুক্ত মনে হচ্ছে।

অ্যাকাডেমিক পড়াশোনা ঠিক রেখে অনলাইন মার্কেটপ্লেসে কাজ করা আমার কাছে অনেক চ্যালেঞ্জেরও মনে করেন জোবায়ের। চ্যালেঞ্জ নিতে হলে থাকতে হবে ধৈর্য্য আর পরিশ্রম করার মানসিকতা। স্বপ্ন দেখছি ভবিষ্যতে একটি আইটি ফার্ম হবে। যেখানে কর্মসংস্থানের মাধ্যমে অসংখ্য শিক্ষিত বেকার যুবকের মুখে হাসি ফুটবে।

দুলাল হোসেন

মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান দুলাল হোসেন। নিজের বাবাকে হারিয়েছেন অনেক ছোটোবেলায়। জেএসসিতে ও এসএসসিতে বৃত্তি পাওয়া দুলালের সপ্ন ছিল ডাক্তার হওয়ার। কিন্তু এইচএসসিতে আশানুরূপ ফলাফল না হওয়ায় সেই সপ্ন ভেঙে যায়। ভর্তি হোন ঢাকা কলেজে। বর্তমানে পড়াশোনা করছেন ঢাকা কলেজের অর্থনীতি বিভাগের স্নাতক (অনার্স) চতুর্থ বর্ষে।

ফ্রিল্যান্সিং শুরু করেন ২০১৬ সালে। বলেন যখন ২০১৫ সালে একটা ইন্সটিটিউটে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কোর্সে ভর্তি হয়েছিলাম তখন আমার নিজস্ব কম্পিউটার ছিল না। সাইবার ক্যাফেতে কাজ করে কোর্সের অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতাম। ২০১৬ সালের প্রথমে নিজের টিউশনির টাকা দিয়ে কম্পিউটার কিনি এরপর শুধুই পথচলা।বর্তমানে কাজ করছেন আপওয়ার্ক, ফাইভার সহ আরো বেশকিছু অনলাইন মার্কেটপ্লেসে এছাড়াও ফ্রিল্যান্সিং ইন্সটিটিউট ’কোডম্যানবিডির' মেন্টর হিসেবে।

পড়াশোনার পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং কেমন উপভোগ করেছেন জানতে চাইলে বলেন, পড়াশোনার পাশাপাশি ফ্রিল্যান্সিং মুক্ত পেশা হিসেবে পার্ট টাইম জব হিসেবে নিয়েছি। ফ্রিল্যান্সিং এর টাকায় নিজের পড়াশোনার খরচের পাশাপাশি পরিবারকে খুব ভালোভাবে সাপোর্ট দিতে পারছি।

ফ্রিল্যান্সিং এ সফলতা অর্জনের জন্য ধৈর্য্য থাকতে হবে বলে মনে করেন দুলাল হোসেন। প্রথম পর্যায়ে কাজ না পেলেও হতাশ হওয়া যাবে না তাহলেই আসবে সফলতা। আগামীতে নিজেকে একজন সফল ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করার পাশাপাশি একটি তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করতে চান তিনি।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
লক্ষ্মীপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর
//