ব্রেকিং:
প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্ব ক্যারমে পঞ্চম হেমায়েত মোল্লা বিয়ের আগে একমাত্র কন্যাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ মিথিলার চর মার্টিনে নেতৃত্বে আসতে চান বেলায়েত সকল সমুদ্র বন্দরের সংযোগ নেটওর্য়াক হবে ভোলা-লক্ষ্মীপুর সেতু লক্ষ্মীপুরে গুলিবিদ্ধ দুই যুবকের মরদেহ উদ্ধার লক্ষ্মীপুরে প্রতিবন্ধী দিবসে র‌্যালি ও সভা রামগঞ্জ উপজেলা শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক শামছুল ইসলাম প্রতিবন্ধীদের নিয়ে ‘নেতিবাচক মানসিকতা’ পরিহার করুন: প্রধানমন্ত্রী যুব গোল্ডকাপ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট উদ্বোধন ১৫ ডিসেম্বর থেকে ই-পাসপোর্ট চালু: পররাষ্ট্রমন্ত্রী কৃষিজাত পণ্য রফতানি করতে চাই: কৃষিমন্ত্রী গণতন্ত্র মুক্তি দিবস আজ সন্ধ্যায় সৃজিত-মিথিলার বিয়ে কাঁচা মাছ, মাংস, লতাপাতা খেয়েও স্বাভাবিক আছেন অদ্ভুত এই ব্যক্তি! কাতারে বাংলাদেশি হাফেজদের কৃতিত্বপূর্ণ সাফল্য সোনা কেনার সময় যা খেয়াল রাখা খুব জরুরি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুবার্ষিকী আজ বাংলাদেশের হজ কোটা বাড়াল সৌদি আরব সেরা কে? মুখ খুললেন অনুশকা আওয়ামী লীগের ২১তম কাউন্সিল হবে সাদামাটা

শনিবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৬   ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১

বঙ্গবন্ধুর পরিবার সততা ও রাজনীতির প্রতীক: কাদের

প্রকাশিত: ১ ডিসেম্বর ২০১৯  

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর পরিবার সততা ও রাজনীতির প্রতীক। তাদের দেখে শিক্ষা নিন। দুর্নীতি, টেন্ডারবাজি করে জনগণের আস্থা অর্জন করা যায় না।

শনিবার রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সম্মেলনে বক্তব্য দিতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসা করে এবং তার পরিবার থেকে শিক্ষা নিয়ে নেতাকর্মীদের পথ চলার আহ্বান জানিয়ে বলেন, সততা কাকে বলে ৭৫ এর পরে শেখ হাসিনা ছাড়া আর একজনের নাম কেউ বলতে পারবেন? প্রধানমন্ত্রীর বোন শেখ রেহেনা খুব সিম্পল জীবন যাবন করেন। সজীব  ওয়াজেদ জয় তিনি কম্পিউটারের ইন্জিনিয়ার। তিনি আইসিটিতে নিরব বিপ্লব ঘটাচ্ছেন। তিনি হাওয়া ভবন করেননি। তিনি সামনে আসেন। শেখ হাসিনার কণ্যা পুতুল সারা বিশ্বের অটিজম শিশুদের নিয়ে কাজ করেন। শেখ রেহেনার ছেলে ববি তিনিও কাজ করে খান। কিন্তু আমরা শুধু দেই বক্তব্য। আমরা সব জায়গাতেই দেখি করাপশন। আমাদের এত করাপশন করতে হবে কেন? এই করাপশন যারা করেন তারা কারা? আসুন আমরা বঙ্গবন্ধুর পরিবার থেকে সততা শিক্ষা নেই।

তিনি বলেন, আমাদের দেশের মহানায়ক জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তাকে খুন করে দুষ্কৃতিকারীরা। সেই মহানায়ক বঙ্গবন্ধুর রক্তে ভিজে গেছে শ্যামল বাংলা। ১৯৭৫ সালে তাকে খুন করার পরে বাঙালির জীবনে অন্ধকার নামে আসে। তার পরে শেখ হাসিনা আসলেন সারা জাতি সংগ্রামের মালাগাথে নতুন আশায়। বারবার আপনার জীবনের উপর হামলা এসেছে। আপনি ভয়কে জয় করে এগিয়ে গেছেন এদেশের মানুষের ভাগ্য বদল করতে। 

তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনা যদি দেশে না আসতো ৯৬ সালে ক্ষমতায় আসতে পারতো আওয়ামী লীগ। শেখ যদি না আসতো, সমুদ্র বিজয়, পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল, কর্ণফুলি টার্নেল, পায়রা সমুদ্র বন্দর হতো বাংলাদেশে। শেখ হাসিনা না থাকলে এতো কিছু সম্ভব হতে না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন আর বেশি দূরে নয়। সেই নির্বাচনের জন্য এই সম্মেলন থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে।’

শনিবার বেলা ১১টার দিকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মেলনের মঞ্চে এসে পৌঁছান আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক অভিভাবক শেখ হাসিনা। সকাল ১১টা ৫ মিনিটে পতাকা উত্তোলন, জাতীয় সংগীত পরিবেশন এরপরে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে সম্মেলনে উদ্বোধন করেন তিনি।

এটি সম্মেলনের প্রথম পর্ব। দ্বিতীয় পর্বে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে কাউন্সিল অধিবেশনে নতুন নেতৃত্ব ঘোষণা করবেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। 

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি হাজী আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উত্তর আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি এ কে এম রহমতুল্লাহ। 

শনিবার সকাল থে‌কে দেখা যায়, সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা লক্ষ্য করা গেছে। রাজধানীর ও চারপাশ সেজেছে বর্ণিল সাজে। নেতাকর্মীদের ব্যানার, ফেস্টুনসহ বিভিন্ন রঙিন বাতি দিয়ে সাজানো হয়েছে শহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট।

মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর-দক্ষিণ, ৪৫ থানা ও ১০০ ওয়ার্ড ও ইউনিয়নগুলোর কমিটি হয়েছে। প্রতিটি থানার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হবে কাউন্সিলর। ওয়ার্ড ও ইউনিয়নের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম লিখে জমা দেবে থানার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের কাছে। তাদের মধ্যে থেকে সমন্বয় করে নির্বাচন করবে কে হবে কাউন্সিল আর কে হবে ডেলিগেট।

এরইমধ্যে কৃষকলীগ, জাতীয় শ্রমিকলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও যুবলীগের সম্মেলন শেষ হয়েছে। সব সংগঠনেই এসেছে নতুন নেতৃত্ব। এরই ধারাবাহিকতায় মহানগর রাজনীতির শীর্ষ নেতৃত্বে আসছে নতুন মুখ-এমন আভাস দিয়েছেন দলটির একাধিক নীতিনির্ধারক।

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে বলেছেন, যারা দলের জন্য ত্যাগ স্বীকার করেছেন, যাদের ক্লিন ইমেজ, কোনো বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে নেই, সাবেক ছাত্রনেতা তাদেরকেই এবার দলের সভাপতি মূল্যায়ন করবেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ ডেইলি বাংলাদেশকে বলেন, বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার আদর্শ অনুসারী, মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি, ত্যাগী, সৎ, নিষ্ঠাবান কর্মীবান্ধব এমন নেতারা নেতৃত্বে আসবে বলে আশা করি।

২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন হয়। এর তিন বছর পর ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগকে দু’ভাগে বিভক্ত করা হয়। ২০১৬ সালের ১০ এপ্রিল মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর-দক্ষিণ, ৪৫টি থানা এবং ১০০টি ওয়ার্ড ও ইউনিয়নগুলোর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নাম ঘোষণা করা হয়।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//