ব্রেকিং:
পেশীর টান? প্রতিকারের সহজ উপায় কম গ্যাস খরচ করে রান্নার সেরা কৌশল! স্ত্রীদের সঙ্গে রাসূল (সা.) এর আচরণ ও বিনোদন ধর্ষকের সাজা কমাতে কোটি টাকার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান তরুণীর দুঃসময়ের নেতাদের নেতৃত্বে আনা হবে: কাদের আজ ভয়াল ১২ নভেম্বর মিয়ানমারের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে গাম্বিয়ার মামলা যেভাবে ঘটে দুই ট্রেনের সংঘর্ষ (ভিডিও) ট্রেন দুর্ঘটনায় আহতদের প্রচুর রক্তের প্রয়োজন দুই ট্রেনের সংঘর্ষের ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন যুক্তরাজ্যে গাঁজা দিয়ে তৈরি হচ্ছে ওষুধ সেন্টমার্টিনে আটকা পর্যটকদের আনতে তিন জাহাজ ৯৯৯ এ কল, পুলিশ-কোস্টগার্ডের অভিযানে ৩০ জীবন রক্ষা সুন্দরবনে পর্যটক প্রবেশ বন্ধ গৃহবধূ ধর্ষণের ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়ানোয় আটক ১২ ভোলায় ট্রলার ডুবিতে এক জেলের প্রাণহানি, নিখোঁজ ১০ টাকার বান্ডিলের উপর ঘুমিয়ে থাকা সেই এসআই প্রত্যাহার টানা বৃষ্টিতে জনজীবন বিপর্যস্ত লক্ষ্মীপুরসহ যেসব জেলায় ১১ ও ১২ নভেম্বর শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ দুর্যোগ-পরবর্তী করণীয়

মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৭ ১৪২৬   ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

৫৭

বাবাকে বাঁচাতে কুবি শিক্ষার্থীর ফেসবুক স্যাটাস

প্রকাশিত: ১৭ অক্টোবর ২০১৯  

শর্মী আচার্য্য ও উর্মি আচার্য্য দুইবোন। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষার্থী। বড়বোন শর্মী ২০১২-১৩ শিক্ষাবর্ষে (৭ম ব্যাচ) গণিত বিভাগে পড়েন। ছোটবোন উর্মি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের (৮ম ব্যাচ) অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস (এআইএস) বিভাগে পড়েন।

তাদের বাবা নারায়ন আচার্য্য দীর্ঘদিন যাবৎ লিভার সিরোসিসে ভুগছেন। এতদিন বাবার চিকিৎসা ব্যয় পারিবারিকভাবে চালিয়েছেন। কিন্তু এখন চিকিৎসা বাবদ প্রায়  ১৫ লাখ টাকা প্রয়োজন। এতটাকা সংগ্রহ করা তাদের পক্ষে সম্ভব নয়। তাই উর্মি সবার সহযোগিতা চেয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন।

স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হলো-

‘পরিবারের সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।
আমি উর্মি আচার্য্য, এআইএস, ৮ম ব্যাচ। আমার বড় বোন শর্মী আচার্য্য, গণিত, ৭ম ব্যাচ।

যুদ্ধটা এতদিন আমরা পারিবারিক ভাবেই করে আসার চেষ্টা করছিলাম। কিন্তু আজ শেষ পর্যায়ে এসে একসঙ্গে এত কম সময়ের মধ্যে যখন এতগুলো টাকা দরকার পরে তখন সত্যিই মাথার উপর আকাশ ভেঙে পড়ার অবস্থা হয়। উপরওয়ালা সহায় হলে আর কুবি পরিবারের সবার সহযোগিতা পেলে বাবাকে সুস্থ করে তোলার যুদ্ধে লড়তে পারব বলে বিশ্বাস রাখি

আমাদের বাবা নারায়ণ আচার্য্য দীর্ঘদিন যাবৎ লিভার সিরোসিসে ভুগছেন। ডাক্তাররা চূড়ান্ত চিকিৎসা হিসেবে লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্টের কথা জানান। এরই মাঝে আমি বাবাকে লিভারের অংশ ডোনেট করার জন্যে ফিট বলে জানতে পারি। বাংলাদেশে ট্রান্সপ্ল্যান্টে ঝুঁকি থাকলেও অনেক বেশি অর্থের প্রয়োজন হওয়ায় ভারতে নেওয়া সম্ভব হয়নি।

তাই ঢাকার শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ট্রান্সপ্ল্যান্টের সিদ্ধান্ত হয়।

কিছুদিন পূর্বে ডাক্তাররা সবকিছু চূড়ান্ত করে জানান অক্টোবরের শেষের দিকে যেকোন দিন ট্রান্সপ্ল্যান্ট করানো হবে। ট্রান্সপ্ল্যান্টের আগে পাঁচ লাখ টাকা জমা করতে বলা হয়েছে। ট্রান্সপ্ল্যান্টের পরবর্তী দুই বছর ধরে প্রতিমাসে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকার মেডিসিন, আনুষঙ্গিক খরচসহ ১৫ লাখ টাকার দরকার। একক ভাবে এত টাকা জোগাড় করা আমাদের পরিবারের পক্ষে অসম্ভব হয়ে গিয়েছে। তাই সবার সহযোগিতা কামনা করছি।

উর্মি আচার্য্য
এআইএস বিভাগ (৮ম ব্যাচ)
যোগাযোগে:
০১৭০৩৫১৯৯৭৭
০১৫২১৪৪৯১৭৭
বিকাশ নাম্বার:
০১৭০৩৫১৯৯৭৭ (পার্সোনাল)

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//