ব্রেকিং:
চীন থেকেই চালু হয় হারেমে একাধিক রক্ষিতা রাখার প্রথা! ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রীকে কীটনাশক খাইয়ে হত্যার চেষ্টা অনলাইনে পরীক্ষা ও ভর্তি বন্ধে ইউজিসি’র আহ্বান করোনা ঠেকাতে স্বেচ্ছায় লকডাউনে তিনগ্রাম স্বাস্থসেবীদের জন্য সিএমপি`র ফ্রি বাস সার্ভিস দেশের জন্য আগামী ৩০ দিন আরো ঝুঁকিপূর্ণ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ওষুধের দোকান ছাড়া সন্ধ্যার পর সব বন্ধ রাখার নির্দেশ করোনায় আর্থিক সহায়তা পাচ্ছে জার্মানরা কমলনগরে সূর্যের হাসি ক্লিনিকটি বন্ধ গত ১০ দিন করোনা সংকট: দুর্নীতির শঙ্কায় বিএনপিকে না বললেন ড. ইউনূস করোনা আতঙ্কে বন্দুক কিনছে মার্কিনিরা ৯ মিনিটের জন্য অন্ধকারে ভারত এসএসসির ফল চলে যাবে অভিভাবকদের মোবাইলে রাসূলকে (সা.) স্বপ্নে দেখার আমল খাবার নিয়ে অসহায় মানুষের সৌরভ গাঙ্গুলি ভূমিকম্পের মাধ্যমে ধ্বংস হয়েছিল ‘পবিত্র নগরী’! লকডাউন আইসোলেশন কোয়ারেন্টাইন : ইসলাম যা বলে ছু‌টি বাড়লো ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে আরও বেশি মানুষ মারা যাবে, বললেন ট্রাম্প দেশে আরো ১৮ জন করোনা রোগী শনাক্ত, মোট ৮৮
  • মঙ্গলবার   ০৭ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৩ ১৪২৬

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪১

২০

বাসস্টপে পড়ে আছে মানবদেহ, ভয়ে কাছে যাচ্ছেন না কেউ!

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ২৫ মার্চ ২০২০  

চারদিক জনমানবহীন। প্রায় অদৃশ্য যানবাহনগুলোও। ফুটপাতে পথচারীর সংখ্যা হাতেগোনা। করোনা আতঙ্কে ইতালির ব্যস্ত রাস্তাগুলোর এখনকার চেহারাটা অনেকটা এরকমই। এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে শহরটি অবরুদ্ধ হয়ে আছে কয়েক সপ্তাহ ধরে।

ইতালির পরিস্থিতি যে কতটা ভয়াবহ এই চিত্রই তার প্রমাণ। দেশটির প্রাণহীন সড়কে মুখে মাস্ক পরা এক ব্যক্তির নিথর দেহ পড়ে আছে। ২ লাখ ৯০ হাজারেরও বেশি মানুষের শহর রোমে অন্য সময় হলে হয়তো মুহূর্তেই অনেক মানুষ তাকে উদ্ধার করতে আসতো। কিন্তু এখন ভয়ে এখন তার কাছে যাচ্ছে না। এ বিষয়ে রোববার ছবিসহ এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে সংবাদ সংস্থা দ্য সান।

ছবিতে দেখা যায়, রোমের একটি বাসস্টপের যাত্রী ছাউনির সামনে রাখা একটি ব্যাগ। দেখেই বোঝা যাচ্ছে, কোথাও যাওয়ার জন্য বের হয়েছিলেন তিনি। কিন্তু গন্তব্যে আর পৌঁছাতে পারেননি। বাসের অপেক্ষায় থাকতে থাকতেই জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন। শুনশান রাস্তায় পড়ে থাকেন তিনি।

দ্য সানের প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, ওই ব্যক্তিটি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন। তবে তার পরিচয় জানা যায়নি।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, করোনায় আক্রান্ত ওই ব্যক্তি কতক্ষণ রাস্তায় পড়ে ছিলেন তা কেউ জানে না। তবে অনেক সময় পর একটি অ্যাম্বুলেন্স এসে তাকে নিয়ে যায়। তবে তিনি এখন কোথায় আছেন, কোনো হাসপাতালে আছেন কিনা, তা জানা যায়নি।

প্রাণঘাতী করোনার আতঙ্কে এখন ভুগছে সারাবিশ্ব। এই ভাইরাসের উৎস চীনের উহান। বলা হচ্ছে সেখানকার একটি সামুদ্রিক মাছের বাজার থেকে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে। চীনে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসের সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৩ হাজার ২৮১ জনের। চীনা সংবাদমাধ্যমগুলো থেকে যে খবর পাওয়া যাচ্ছে তাতে সেখানে এই ভাইরাসের ধকল কাটিয়ে ওঠার ইঙ্গিত মিলছে। তবে বিপদ এখন চেপে বসেছে ইউরোপে। আক্রান্তের সংখ্যায় ইতালি এখনো চীনকে ছাড়াতে না পারলেও এরইমধ্যে মৃত্যুর সংখ্যায় ছাড়িয়ে গেছে। ইতালিতে মৃতের সংখ্যা ৬ হাজার ৮২০। ২৫ মার্চ পর্যন্ত চীনে মোট আক্রান্ত ৮১ হাজার ২১৮ জন। আর ইতালিতে ৬৯ হাজার ১৭৬ জন।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
করোনাভাইরাস বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর
//