ব্রেকিং:
বুয়েটের ২৬ শিক্ষার্থী আজীবন বহিষ্কার ৬৩ বছর ধরে দিনে দুই কেজি বালি খান এই নারী বলের রং বুঝছেন না লিটন, টাইগার শিবিরে উৎকণ্ঠা লক্ষ্মীপুরে কৃষকদের কাছ থেকে আমন ধান কেনা শুরু হয়েছে চাল,লবণ নিয়ে একটি গোষ্ঠী অপপ্রচার চালাচ্ছে স্কুলছাত্রী হত্যার বিচার ও অবৈধ টলি বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন লক্ষ্মীপুরে নির্মিত হবে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত স্মৃতি স্তম্ভ সশস্ত্র বাহিনীকে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ আহ্বান নাক ডাকলে স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ে, রইলো সমাধান লক্ষ্মীপুরে গণপিটুনিতে ‘ডাকাত’ নিহত বিয়ে বাড়ীর গেট নিয়ে সংঘর্ষ আহত ৮ লক্ষ্মীপুরের সৈয়দ বাপ্পী চট্টগ্রাম রেঞ্জের শ্রেষ্ঠ সংগঠক রামগঞ্জে সিএনজির ধাক্কাতে শিশুর মৃত্যু অস্ত্র-গুলিসহ ৪ ডাকাত আটক রামগঞ্জে নিন্মমানের সামগ্রী দিয়ে সড়ক নির্মানে বাধা সশস্ত্র বাহিনী দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন স্পষ্ট করে লিখতে চিকিৎসকদের নির্দেশ শাহজালাল বিমানবন্দরে পৌঁছেছে পেঁয়াজবাহী কার্গো সরকার টেনিসকে যথাযথ গুরুত্ব দিচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী সশস্ত্র বাহিনী দিবস আজ

শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

১৪

বিদ্রোহীদের কাউন্সিলে না আসাই ভালো: কাদের

প্রকাশিত: ২৯ অক্টোবর ২০১৯  

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হওয়ার ক্ষেত্রে কোনো বাধা নেই। এখানে বিদ্রোহীরাও সাংগঠনিক ইউনিটগুলোর কাউন্সিলে প্রার্থী হতে পারবে। তবে তাদের না আসাই ভালো।

সোমবার সন্ধ্যায় ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে কৃষকলীগের সঙ্গে দলের সাধারণ সম্পাদকের বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিদ্রোহীদের প্রার্থী হওয়ার বিষয়টা কাউন্সিলররা কিভাবে নেবে সেটাই এখন দেখার বিষয়৷ তবে তাদের না আসাই ভালো। কেনোনা এরা যদি আবার নির্বাচিত হয় তাহলে কেউ কেউ বিদ্রোহী হতে উৎসাহ বোধ করতে পারেন।

এর আগে, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর বিরোধিতা করেছে যারা তাদের বিরুদ্ধে শোকজ চিঠি পাঠানো হয়েছিল। এই চিঠিতে কারণ দর্শানোর জন্য বলা হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে বিদ্রোহীরা ক্ষমা চেয়ে চিঠি পাঠালে সবাইকে ক্ষমা করা হয়। এই তালিকার স্থানীয় এমপিও ছিল।

কৃষকলীগের নেতাদের উদ্দেশ্য সাধারণ সম্পাদক বলেন, নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা থাকা ভালো। অসুস্থ প্রতিযোগিতা যাতে না হয় সে বিষয়ে সর্তক থাকতে হবে। কারো চরিত্র হরণ করা যাবে না। নিজের প্রচার করবেন, কিন্তু অন্যের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ ছড়াবেন না। সম্মেলনের জন্য কৃষকলীগ প্রস্তুত। এরইমধ্যে তাদের পোস্টার ও দাওয়াত কার্ড তৈরি হয়ে গেছে। নগরীতে পোস্টার লাগিয়ে সম্মেলনের আবহাওয়া সৃষ্টি করতে হবে। এ জন্য দুটি সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে।

কৃষকলীগকে কৃষকদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, নতুন ভাবে কৃষকলীগকে সাজাতে চাই। গ্রাম বাংলায় কৃষকলীগকে কৃষকদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে। মনে রাখতে হবে বিতর্কিত লোক যাতে কমিটিতে জায়গা না পায়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, দফতর সম্পাদক আব্দুস সোবহান গোলাপ, কৃষকলীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লা, সহ-সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খন্দকার শামসুল হক রেজা প্রমুখ।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//