ব্রেকিং:
হুমায়ূন আহমেদের প্রথম স্ত্রী’র দ্বিতীয় বিয়ে মান সম্মত শিক্ষায় বাংলাদেশ রোল মডেল হবে রংপুর এক্সপ্রেসের ৭টি বগি লাইনচ্যুত, তিনটিতে আগুন দুই দোকানে চুরি, ১৭ লাখ টাকার মালামাল লুট ১৪ নভেম্বর থেকে ৩দিন ব্যাপি জাতীয় নজরুল সম্মেলন কিশোরগঞ্জ আদালতের বিচারককে হাইকোর্টে তলব চিরনিদ্রায় শায়িত ‘সোনার টুকরা আদিবা’ আজীবন ছাত্রত্ব বাতিল হতে যাচ্ছে বুয়েটের ২৫ শিক্ষার্থীর শতভাগ নরমাল ডেলিভারিতে চাঁদপুর মাতৃমঙ্গল রায়পুরে ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ লক্ষ্মীপুর থেকে উপকূল দিবসের রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দাবি লক্ষ্মীপুরের জমিদারবাড়ি ঘিরে অপার সম্ভাবনা আল্লাহ এমপি কন্যার মনোবাসনা পূর্ণ করুন লক্ষ্মীপুর সরকারি কলেজে উপকূল দিবস পালিত রায়পুরে মুজিববর্ষ জাতীয় স্কুল কাবাডি শুরু রামগতিতে দূর্গতের মাঝে ত্রাণ বিতরণ ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে চাউল ও টেউটিন বিতরণ জেলা গোয়েন্দা শাখার নতুন ভবন এর “শুভ উদ্ভোধন” এই খাবারগুলো কাঁচা খাওয়াই উত্তম! চীনে স্কুলে রাসায়নিক হামলা, শিশুসহ আহত অর্ধশতাধিক

শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ৩০ ১৪২৬   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

৬২৬৭

ভাঙ্গনের পথে বিএনপি !!!

প্রকাশিত: ২৯ ডিসেম্বর ২০১৮  

ভোট গ্রহণের মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে নির্বাচন বর্জন ইস্যুতে চরম বিরোধে জড়িয়ে পড়েছেন বিএনপির শীর্ষ নেতারা। নির্বাচনে যাওয়া না যাওয়া ইস্যুতে নেতারা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে প্রকাশ্য বিরোধে জড়িয়ে পড়েছেন। দল ভেঙ্গে যাওয়ার ইঙ্গিতও দিচ্ছেন অনেকে। শুক্রবার বিএনপির শীর্ষ কয়েক নেতার টেলিফোন আলাপ ফাঁসে বেরিয়ে এসেছে দলের বিরোধের চিত্র। তারেক রহমান, মওদুদ আহমেদসহ এক পক্ষ এখন নির্বাচন বর্জন করে দলের ৩০০ প্রার্থী নিয়ে নির্বাচন কমিশনের সামনে বসে পড়ার পক্ষে। তবে মহাসচিব মির্জা ফখরুল, আবদুল আউয়াল মিন্টুসহ আরেক পক্ষ নির্বাচন বর্জনের বিপক্ষে। মওদুদের ফোনও রিসিভ করছেন না ফখরুলসহ অন্যরা।

নির্বাচন বর্জনের পক্ষে থাকা নেতাদের অবস্থান সম্পর্কে জানা গেছে, বিএনপিসহ ঐক্যফ্রন্টের নেতারা আশা করেছিলেন, নির্বাচনের আগেই তাদের পক্ষ নিয়ে সারাদেশে জনগণ রাস্তায় নেমে আসবে। নির্বাচনে সরকার শক্ত অবস্থান নিলেও রীতিমতো গণঅভ্যুত্থানের স্বপ্ন দেখছিলেন তারা। তবে কর্মীদের জাগাতে পারছেন না বিএনপি নেতারা। নেতারা জ্বালাময়ী বক্তৃতা দিয়ে বলেছেন, কর্মীদের সকাল থেকে একসঙ্গে ভোটকেন্দ্রে যেতে হবে। নেতার বলেছেন ভোটকেন্দ্র পাহারা দিতে। কিন্তু ভোটের সময় যতই এগিয়ে আসছে ততই কর্মীরা গর্তে ঢুকে যাচ্ছে। অন্যদিকে বিএনপি এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের কর্মীরা বলছেন, নেতারা তাদের আগুনে ঝাঁপ দিতে বলছেন, কিন্তু রক্ষার পথ বাতলে দিতে পারছেন না। এভাবে লক্ষ্যহীনভাবে তারা আর আত্মঘাতী হতে রাজি নন।

নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকেই বিএনপি এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা নানা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। বলেছেন, ক’দিন পরেই সব বদলে যাবে। কিন্তু পরিস্থিতি বদলায়নি। জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন বলেছিলেন, মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার পরেই প্রশাসন এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকজন নিরপেক্ষ হয়ে যাবে। কর্মীরা বলছেন, ড. কামালের আশ্বাসে কর্মীরা মাঠে নেমে এখন বেকুব বনে গেছেন। বড় বড় নেতারা ঘর থেকে বের হন না বলেও আপত্তি উঠেছে। এরপর বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছিলেন, সেনা মোতায়েন হলেই পরিস্থিতি অন্যরকম হয়ে যাবে। তার ভাষায়, ‘আওয়ামী লীগ ভয়ে পালাবে’। বিএনপি আশা করেছিল সেনাবাহিনী তাদের পক্ষে প্রকাশ্য অবস্থান নেবে। কিন্তু সেটাও হয়নি। সেনাবাহিনী নিরপক্ষে অবস্থানে থাকায় বিএনপি নেতারা এখন বলছেন, সেনা মোতায়েনের পর পরিস্থতি বিএনপি কর্মীদের জন্য আরও খারাপ হয়েছে। ঠিক এমন এক অবস্থায় হতাশ বিএনপির একপক্ষ নির্বাচনে গেলে সরকারকে বৈধতা দেয়া হবে বলে ধরে নিয়ে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তারা তারেক রহমানের সঙ্গে কথা বলছেন। এ পক্ষ বলছে, এভাবে নির্বাচনে গেলে সরকারকে কেবল বৈধতাই দেয়া হবে। নিজেরা ১৫ থেকে ২০টির বেশি আসন পাবে না। তারেক রহমানের কাছে এ পক্ষটি ফখরুলসহ অন্যদের ষড়যন্ত্রকারী বলেও আখ্যা দিয়েছেন।

বিএনপির বিরোধের কথা এতদিন নানা সূত্র থেকে গণমাধ্যমে এলেও নেতারা কিছু বলতে রাজি হচ্ছিলেন না। তবে শুক্রবার দলটির অন্যতম নেতা মওদুদ আহমদের এক দীর্ঘ টেলিফোন আলাপে বেরিয়ে পড়েছে বিরোধের ভয়াবহ চিত্র। সামাজিক মাধ্যমে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের অডিও কল ফাঁস হয়েছে শুক্রবার সকালে। যেখানে তাকে বিএনপির নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিয়ে চরম অসন্তোষ প্রকাশ করতে দেখা গেছে। ফাঁস হওয়া অডিও কলে মোবাইলের অপরপ্রান্তে থাকা ব্যক্তিকে বুলু নামে সম্বোধন করেছেন মওদুদ। কিন্তু তার কোন পরিচয় সেই ফাঁস হওয়া মোবাইল কল থেকে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে দলটির সূত্রগুলো বলছে, বিএনপি নেতা বরকতউল্লাহ বুলু হতে পারেন এ নেতা।

এদিকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদের একটি ফোনালাপ ফাঁস হয়েছে। এতে তাকে দলীয় কর্মী মোহাম্মদ শফিকুল হকের সঙ্গে কথা বলতে শোনা গেছে। নির্বাচনে গেলে জামায়াত-শিবির নেতাদের এজেন্ট করার নির্দেশ দিয়েছেন বিএনপি নেতা। টেলিফোন আলাপে বলেছেন, ‘আমাদেরগুলো (নিজ দলের নেতাকর্মী) ভীতু। শিবির নেতাদের এজেন্ট করো।’

 

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//