ব্রেকিং:
প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে বিশ্ব ক্যারমে পঞ্চম হেমায়েত মোল্লা বিয়ের আগে একমাত্র কন্যাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ মিথিলার চর মার্টিনে নেতৃত্বে আসতে চান বেলায়েত সকল সমুদ্র বন্দরের সংযোগ নেটওর্য়াক হবে ভোলা-লক্ষ্মীপুর সেতু লক্ষ্মীপুরে গুলিবিদ্ধ দুই যুবকের মরদেহ উদ্ধার লক্ষ্মীপুরে প্রতিবন্ধী দিবসে র‌্যালি ও সভা রামগঞ্জ উপজেলা শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক শামছুল ইসলাম প্রতিবন্ধীদের নিয়ে ‘নেতিবাচক মানসিকতা’ পরিহার করুন: প্রধানমন্ত্রী যুব গোল্ডকাপ ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্ট উদ্বোধন ১৫ ডিসেম্বর থেকে ই-পাসপোর্ট চালু: পররাষ্ট্রমন্ত্রী কৃষিজাত পণ্য রফতানি করতে চাই: কৃষিমন্ত্রী গণতন্ত্র মুক্তি দিবস আজ সন্ধ্যায় সৃজিত-মিথিলার বিয়ে কাঁচা মাছ, মাংস, লতাপাতা খেয়েও স্বাভাবিক আছেন অদ্ভুত এই ব্যক্তি! কাতারে বাংলাদেশি হাফেজদের কৃতিত্বপূর্ণ সাফল্য সোনা কেনার সময় যা খেয়াল রাখা খুব জরুরি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুবার্ষিকী আজ বাংলাদেশের হজ কোটা বাড়াল সৌদি আরব সেরা কে? মুখ খুললেন অনুশকা আওয়ামী লীগের ২১তম কাউন্সিল হবে সাদামাটা

শনিবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৬   ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১

ভারতে ‘ডাইনি’ অপবাদে হত্যাকাণ্ড চলছেই

প্রকাশিত: ১ ডিসেম্বর ২০১৯  

ভারতের নানা অঞ্চলে ডাইনি অপবাদে নারী-পুরুষদের পিটিয়ে বা কুপিয়ে হত্যা করা হচ্ছে। কুসংস্কারের কারণে এসব হতাহতের ঘটনা মধ্য, পূর্ব ও উত্তর-পূর্বাঞ্চলে বেশী পরিমাণে ঘটেছে। খবর- ওয়ান ইন্ডিয়া।

ভারতের সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী চন্দ্র মোহন পাটোয়ারি জানান, শুধু আসামে ২০১১ সাল থেকে এখন পর্যন্ত ১০৭ জনকে ডাইনি সন্দেহে খুন করা হয়েছে। ২০১৬ সালের মে মাস পর্যন্ত ৮৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। আর ২০১৯ সালের অক্টোবর মাস পর্যন্ত আরো ২৩ জনকে একই কারণে হত্যা করা হয়েছে।

ভারতের স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, আসামের কোকরাঝাড়, চিরাং এবং উডালগৌরি জেলায় ডাইনি সন্দেহে হত্যার ঘটনা সবচেয়ে বেশি। কোকরাঝাড়ে এখন পর্যন্ত ২২ জনকে হত্যা করা হয়েছে। 

এছাড়া চিরাং জেলায়  ১৯ জনকে খুন করা হয়েছে। আর উডালগৌরি জেলায় ১১ জনকে খুন করা হয়েছে। বিশ্বনাথে নয়জনের মৃত্যু হয়েছে। গোয়াল পাড়ায় সাতজন, নগাঁওয়ে ছয়জন এবং তিনসুকিয়ায় ছয়জনকে খুন করা হয়েছ। কার্বি আংলং এবং মাজুলিতে চারজনকে খুন করা হয়েছে।

শুধু নারীরাই নয়, পুরুষরাও এই কুসংস্কারের বলি হয়েছেন আসামে। ২০১৬ সালের মে মাসের পর থেকে যে ২৩ জনকে ডাইনি সন্দেহে খুন করা হয়েছে তার মধ্যে ১২ জন পুরুষ এবং ১১ জন নারী। 

এদিকে এই কুসংস্কার নিয়ন্ত্রণে আইন তৈরি হয়েছে। কিন্তু সচেতনতার অভাবে সেটা কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হচ্ছে না। সরকারের পক্ষ থেকেও তেমন সচেতনতা প্রচার অভিযান চালানো হয়নি। 

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//