ব্রেকিং:
বিদ্যালয়ের শরীরে বিজয়ের ছাপ লক্ষ্মীপুরে কোরআন হাফেজদের পাগড়ি প্রদান পল্লী বিদ্যুৎতের গ্রাহক হয়রানী বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন লক্ষ্মীপুরে গৃহবধুর মরদেহ উদ্ধার কমলনগরে বিএমজিটিএ’র সম্মেলন সরকারি কলেজে অনার্স কোর্স সমাপনী উৎসব রোগী আছে, ওষুধ নেই বছরজুড়েই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু আদালত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পাননি সাবেক অধিনায়করা শুদ্ধি অভিযান সফল করতে হবে: কাদের নিজেকে ইসরায়েলের সেরা বন্ধু দাবি করলেন ট্রাম্প বিয়ের পাঁচদিন পরই অন্তঃসত্ত্বা কিশোরীকে তালাক ৩৯তম বিসিএসে আরো ১৬৮ জন চিকিৎসক নিয়োগ আনসারুল্লাহর চার জঙ্গি গ্রেফতার বাসে নারীদের চলাচল: বিপদ এড়াতে পুলিশের পরামর্শ শৈত্যপ্রবাহ নিয়ে দুঃসংবাদ দিলো আবহাওয়া অফিস রুম্পার কথিত প্রেমিক সৈকত ৪ দিনের রিমান্ডে সভাপতির ‘হ্যাঁ’ সম্পাদকের ‘না’ কমলনগরে আওয়ামী লীগের ইউনিয়ন সম্মেলন স্থগিত লক্ষ্মীপুর-পানপাড়া-রামগঞ্জ সড়ক নয় যেন মরণ ফাঁদ

সোমবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৬   ১১ রবিউস সানি ১৪৪১

৫৩৮

মধ্যরাত থেকে ২২ দিন ইলিশ ধরা বন্ধ

প্রকাশিত: ৯ অক্টোবর ২০১৯  

লক্ষ্মীপুরে মা ইলিশ সংরক্ষণের লক্ষ্যে মেঘনা নদীতে আগামী ২২ দিন মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে সরকার। মঙ্গলবার (৮ অক্টোবর) রাত ১২টা থেকে এ নিষেধাজ্ঞা শুরু হবে।

এ আদেশ অমান্য করলে অভিযুক্তদের সর্বোচ্চ দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড অথবা জরিমানাসহ উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা যাবে। এ নিয়ে জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে অবহিতকরণ সভা ও মাইকিংসহ বিভিন্নভাবে প্রচার-প্রচারণার মাধ্যমে এ ব্যাপারে জেলেদের সতর্ক করা হয়েছে।

নিষেধাজ্ঞার সময়ে লক্ষ্মীপুর সদর, রামগতি, কমলনগর ও রায়পুরের ৩৫ হাজার ৩২৬ জন জেলেকে সরকারিভাবে বিনামূল্যে চাল দেয়া হবে। কিন্তু লক্ষ্মীপুরে প্রায় ৬২ হাজার জেলে রয়েছে। এর মধ্যে প্রায় ৫০ হাজার জেলের কার্ড রয়েছে। কার্ড থাকা সত্ত্বেও প্রায় ১৫ হাজার জেলে সরকারি সহায়তা পান না।

দাদন ও আড়তদারদের থেকে ঋণ তাদের পুঁজি। এ কারণে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে তাদেরকে বাধ্য হয়ে নদীতে নামতে হয়। নদীতে না নামলেও নিষেধাজ্ঞাকালীন তাদেরকে অলস সময় কাটাতে হয়। ধারদেনা করে চালাতে হয় সংসার।

জানা গেছে, চন্দ্রমাসের ভিত্তিতে আশ্বিন মাসের পূর্ণিমার দিন, আগের চার দিন ও পরের ১৭ দিন ইলিশ প্রজনন মৌসুম ধরা হয়। আশ্বিন মাসের ভরা পূর্ণিমায় মা ইলিশ সবচেয়ে বেশি ডিম ছাড়ে। এজন্য মা ইলিশ মেঘনা উপকূলে আসে। ৯ অক্টোবর মধ্যরাত থেকে ৩০ অক্টোবর মধ্যরাত পর্যন্ত এ ২২ দিন রামগতির আলেকজান্ডার থেকে চাঁদপুরের ষাটনল পর্যন্ত মেঘনা নদীর ১০০ কিলোমিটার এলাকায় মাছ ধরায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়।

জেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, মা ইলিশ রক্ষায় লক্ষ্মীপুর সদর, রামগতি, কমলনগর ও রায়পুর উপজেলার মেঘনা নদীতে ২২ দিন সকল প্রকার মাছ শিকার নিষিদ্ধ। সরকারের এ আইন বাস্তবায়ন করতে রামগতির আলেকজান্ডার থেকে রায়পুরের টাংকির পুল পর্যন্ত ৭৫ কিলোমিটার মেঘনা এলাকায় ইলিশ আহরণ, পরিবহন, বাজারজাতকরণ, বিক্রয় ও মজুত নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ নিয়ে জেলা, উপজেলা ও মৎস্য বিভাগ থেকে সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

জেলেদের সচেতনতা বৃদ্ধিতে অবহিতকরণ সভা, মাইকিং, ব্যানার ও লিফলেট বিতরণ করা হয়েছে। আইন বাস্তবায়নে মৎস্য বিভাগের পাশাপাশি জেলা ও উপজেলা প্রশাসন, ইউনিয়ন পরিষদ, র্যাব, পুলিশ, বিজিবি ও কোস্টগার্ডের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

কমলনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমতিয়াজ হোসেন বলেন, সরকারের এ পরিকল্পনা বাস্তবায়নে উপজেলার মতিরহাট থেকে রামগতির চরআলেকজান্ডার পর্যন্ত মেঘনা নদী এলাকায় জেলেদের নদীতে নামা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। স্থানীয় মাছঘাট ও আড়তগুলোতে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

লক্ষ্মীপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এসএম মহিব উল্যাহ বলেন, এখানকার জেলেদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে। তারা নিষেধাজ্ঞার সময় এখন আর নদীতে যায় না। তবুও সরকারি আইন বাস্তবায়নে আমরা সকল প্রস্তুতি নিয়েছি। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে অভিযুক্তদের সর্বোচ্চ দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড অথবা জরিমানাসহ উভয় দণ্ডে দণ্ডিত করা হবে।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//