ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুরে শিশু হত্যার দায়ে মা আটক জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ অটোরিক্সা বন্ধে ট্রাফিক পুলিশের প্রচারণা মা ইলিশ রক্ষায় জেলেদের মধ্যে চাল বিতরণ ওসি ইকবাল হোসেনের বিদায় সংবর্ধনা স্বেচ্ছায় অবসর নিয়েও স্বপদে বহাল শরীর চর্চা শিক্ষক প্রশাসনের কাজে খুশি হয়ে শ্রমিকদের আনন্দ মিছিল সাদা ছড়ি ব্যবহার করি, নিশ্চিন্তে পথ চলি লক্ষ্মীপুরে জাতীয় স্যানিটেশন মাস ও বিশ্ব হাত দোয়া দিবস পালিত ডেঙ্গু কেড়ে নিলো ব্যবসায়ীর প্রাণ ২০২৩ বিশ্বকাপের আয়োজক হতে পারে বাংলাদেশ! সম্রাটের ১০ দিনের রিমান্ড আবরার হত্যাকাণ্ডকে ইস্যু বানাতে চাচ্ছে বিএনপি: কাদের বিশ্বে ৭০ কোটি শিশু পুষ্টিহীনতায় ভুগছে ইরান ও সৌদিকে সরাসরি আলোচনায় বসার প্রস্তাব ইমরান খানের নতুন প্রজন্মকে পরিচ্ছন্ন দেশ গড়ার আহ্বান ঢাকায় হচ্ছে আরো দুই মেট্রোরেল দুই মাসেও সন্ধান মেলেনি স্বজনদের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকার,আটক ৬ চর লরেঞ্জ ইউপি সদস্য নির্বাচনে ইসমাইল হোসেনের জয়

বুধবার   ১৬ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ১ ১৪২৬   ১৬ সফর ১৪৪১

১০৪৩

মেঘনার নির্দয় থাবায় কমলনগর

প্রকাশিত: ৬ অক্টোবর ২০১৯  

মেঘনার ভাঙনে লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার কালকিনি, সাহেবেরহাট, চরলরেন্স, চরফলকন ও সাহেবের ইউনিয়নের অধিকাংশ এলাকা বিলীন হয়ে গেছে। ভয়াবহ ভাঙনের ঝুঁকিতে রয়েছে ১১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এ ছাড়াও এ উপজেলার দীর্ঘ ৩০ বছরের অব্যাহত ভাঙনে এ পর্যন্ত স্থানান্তর হয়েছে প্রায় ২২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। স্থানান্তর হওয়ার পরও আবার ভাঙনের কবলে পড়ছে অনেক প্রতিষ্ঠান। গত ২-৩ দিনের ভাঙনে বিলীন হয়ে গেছে চরফলকন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দু’টি ভবন। এতে দুই শতাধিক শিক্ষার্থীর লেখাপড়া চরম হুমকিতে রয়েছে। মারাত্মক ঝুঁকির মুখে পড়েছে ১১টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- উপজেলার পশ্চিম চরলরেন্স মহিলা দাখিল মাদ্রাসা, পাটারিরহাট মহিলা দাখিল মাদ্রাসা, ফলকন উচ্চ বিদ্যালয়, চরফলকন ছিদ্দিকিয়া দাখিল মাদ্রাসা, তালতলি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরজগবন্ধু মুন্সীপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পশ্চিম চরলরেন্স সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরফলকন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরকালকিনি কে আলম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, চরজগবন্ধু এটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ফয়জুন নাহার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

এ প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে চরফলকন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় গত ২-৩ দিনের তীব্র ভাঙনে দু’টি ভবন বিলীন হয়ে শিক্ষার্থীদের লেখা পড়া বন্ধ হয়ে গেছে। এতে চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী এসএম জাহাঙ্গীর জানান, স্থানীয় সংসদ সদস্যদের নির্দেশে ওয়েস্টিন ইঞ্জিনিয়ার কোম্পানির মাধ্যমে জিও ব্যাগে ডাম্পিং চলছে। এরপরে ভাঙনকবলিত স্থানে ব্লক ডাম্পিং করা হবে। স্থানীয় সংসদ সদস্য মেজর (অব.) আবদুল মান্নান ভাঙনকবলিত এলাকা পরিদর্শনে এসে ওই সময় বলেন, সরকারের সহযোগিতায় দেড়শ’ বছরের পুরনো ওই মসজিদ ভবন, বিদ্যালয়ের ভবন ও কমিউনিটি ক্লিনিক ধরে রাখতে ইমার্জেন্সি জিও ব্যাগ দিয়েও তীব্র ভাঙনে তা ধরে রাখতে পারিনি। সামনে যেন ব্যক্তিগত অর্থে হলেও তিনি সেখানে ব্লক ডাম্পিংয়ের ব্যবস্থা করবেন এবং আর কোনো এলাকা যেন নদী ভাঙনে বিলীন না হয় সে বিষয়ে শতভাগ চেষ্টা তিনি করবেন বলে ঘোষণা দেন।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
এই বিভাগের আরো খবর
//