ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে প্রবাসীর মৃত্যু! লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলেন নির্বাহী কর্মকর্তা লক্ষ্মীপুরে করোনা রোগী ৩৭ জন : নতুন করে শিশুসহ আক্রান্ত ৩ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের মারা যাওয়া তরুণের করোনা নেগেটিভ, তিন ভাই বোনের পজেটিভ লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল এডভোকেট নয়ন লক্ষ্মীপুরে ত্রাণের সাথে ঘরও পেল লুজি মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ বিভিন্ন থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের ভিডিও কনফারেন্স লক্ষ্মীপুরে আরো ৩ জনের করোনা পজেটিভ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? লক্ষ্মীপুরে ধান কেটে কৃষকের ঘরে পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ লক্ষ্মীপুরে ২০০০ পরিবার পেল উপহার সামগ্রী কমলনগরে করোনা উপসর্গে একজনের মৃত্যু, এক বাড়ি লকডাউন ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিলো ছাত্রলীগ, কৃষকের মুখে হাসি ভবানীগঞ্জে কর্মহীন পরিবহণ শ্রমিকদের মাঝে সদর এমপি’র ত্রাণ বিতরণ করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়ালো লক্ষ্মীপুরে লকডাউন অবস্থায় অসুস্থ যুবকের মৃত্যু : নমুনা সংগ্রহ
  • শুক্রবার   ০৫ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২২ ১৪২৭

  • || ১২ শাওয়াল ১৪৪১

২৬

যাকে দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন মেসি

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ১০ এপ্রিল ২০২০  

বর্তমান বিশ্বের সেরা ফুটবলার আর্জেনন্টাইন তারকা লিওনেল মেসি । তর্কযোগ্যভাবে সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়ও মানা হয় তাকে। একবারের জন্য হলেও তার দর্শন পাওয়ার জন্য বিভোর হয়ে থাকেন বিশ্বজোড়া অগণিত ভক্ত সমর্থক। মাঠে তার খেলা দেখে বিমোহিত ও অভিভূত হন।  কিন্তু সেই লিওনেল মেসি নিজে যাকে দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন। যার খেলার মধ্য থেকে খুঁজতেন শিক্ষার উপকরণ।

বার্সেলোনায় লিওনেল মেসি যাদের উপযুক্ত সঙ্গী হিসেবে পেয়েছিলেন, তাদের মধ্যে ফরাসি স্ট্রাইকার থিয়েরি অঁরি ছিলেন অন্যতম। অঁরিই ছিলেন সেই বিশেষ ব্যাক্তি।  যার চোখের দিকে তাকিয়ে কথা বলারও সাহস পাননি বিশ্বসেরা ফুটবলার মেসি।

মেসি নিজেও তো এককালে শিক্ষানবিশই ছিলেন। এখন যেমন তার আকাশছোঁয়া খ্যাতি, এককালে এমনটা ছিল না। তখন এমনও তারকা ছিলেন, যাকে দেখে মুগ্ধ হতেন মেসি। যার খেলার মধ্য থেকে খুঁজতেন শিক্ষার উপকরণ। এমনই একজন ছিলেন বিখ্যাত ফরাসি স্ট্রাইকার ও বার্সেলোনায় মেসির সাবেক সতীর্থ থিয়েরি অঁরি। প্রথম দেখার দিনে নাকি অঁরির চোখে তাকিয়ে কথা বলার সাহসও হয়নি মেসির!

অঁরির প্রতি মুগ্ধতার কথা মেসি নিজেই জানিয়েছেন ফরাসি সংবাদমাধ্যম লে'কিপে। অঁরির সঙ্গে প্রথম দেখা হওয়ার দিনটার কথা এখনো মনে আছে মেসির, ‘তিনি প্রথম যেদিন ড্রেসিংরুমে ঢুকলেন, তার চোখে তাকিয়ে কথা বলার সাহস হয়নি আমার’। কীভাবে এত তাড়াতাড়ি অঁরির সতীর্থ হয়ে গেলেন, মেসি ঠিকঠাক বুঝেই উঠতে পারেননি, ‘আমি জানতাম তিনি ইংল্যান্ডে আর্সেনালের হয়ে কী কী করে এসেছেন। হঠাৎ করে তিনি একদিন আমার সতীর্থ হয়ে গেলেন!’

পরে অঁরির প্রতি নিজের নিখাদ মুগ্ধতার কথাই জানিয়েছেন মেসি, ‘তার জন্য আমি যা অনুভব করি সেটিকে স্রেফ মুগ্ধতা বলা চলে। আমি অঁরিকে ভালোবাসতাম। তিনি যেভাবে গোল করতেন, গোল বানিয়ে দিতেন, আক্রমণ গড়ে দিতেন, সবকিছুই মুগ্ধ করত আমাকে। তিনি এমনভাবে খেলতেন যেন এসব কিছু খুবই সহজ আর স্বাভাবিক। তার ক্যারিয়ার, তার খেলা, তার জীবন, তার ড্রিবল করা সবকিছুই অনেক সহজাত ছিল’।

আর্সেনালের হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ২২৬ গোল করার পর ২০০৭ সালে ২৪ মিলিয়ন ইউরোতে বার্সেলোনায় যোগ দিয়েছিলেন কিংবদন্তি ফরাসি এ স্ট্রাইকার।  আর্সেনালে যে অঁরি ছিলেন নিখাদ একজন স্ট্রাইকার, বার্সেলোনায় এসে তিনি হয়ে গিয়েছিলেন উইঙ্গার। হয়তো ফুটবলটা তাঁর কাছে সহজাত ছিল বলেই!

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
খেলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর
//