ব্রেকিং:
চীন থেকেই চালু হয় হারেমে একাধিক রক্ষিতা রাখার প্রথা! ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে কলেজছাত্রীকে কীটনাশক খাইয়ে হত্যার চেষ্টা অনলাইনে পরীক্ষা ও ভর্তি বন্ধে ইউজিসি’র আহ্বান করোনা ঠেকাতে স্বেচ্ছায় লকডাউনে তিনগ্রাম স্বাস্থসেবীদের জন্য সিএমপি`র ফ্রি বাস সার্ভিস দেশের জন্য আগামী ৩০ দিন আরো ঝুঁকিপূর্ণ: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ওষুধের দোকান ছাড়া সন্ধ্যার পর সব বন্ধ রাখার নির্দেশ করোনায় আর্থিক সহায়তা পাচ্ছে জার্মানরা কমলনগরে সূর্যের হাসি ক্লিনিকটি বন্ধ গত ১০ দিন করোনা সংকট: দুর্নীতির শঙ্কায় বিএনপিকে না বললেন ড. ইউনূস করোনা আতঙ্কে বন্দুক কিনছে মার্কিনিরা ৯ মিনিটের জন্য অন্ধকারে ভারত এসএসসির ফল চলে যাবে অভিভাবকদের মোবাইলে রাসূলকে (সা.) স্বপ্নে দেখার আমল খাবার নিয়ে অসহায় মানুষের সৌরভ গাঙ্গুলি ভূমিকম্পের মাধ্যমে ধ্বংস হয়েছিল ‘পবিত্র নগরী’! লকডাউন আইসোলেশন কোয়ারেন্টাইন : ইসলাম যা বলে ছু‌টি বাড়লো ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে আরও বেশি মানুষ মারা যাবে, বললেন ট্রাম্প দেশে আরো ১৮ জন করোনা রোগী শনাক্ত, মোট ৮৮
  • মঙ্গলবার   ০৭ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৩ ১৪২৬

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪১

৭০১

রামগতিতে অবৈধ অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধান

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ১৬ মার্চ ২০২০  

র‌্যাব-১১ সিপিএসসি, নারায়ণগঞ্জ ও সিপিসি-৩, লক্ষ্মীপুর এর যৌথ অভিযানে রবিবার ভোররাতে নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলার বয়ারচরের মাঈনউদ্দিন বাজার সংলগ্ন এলাকা হতে ৫টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ ২জন আটক হয়।।

গ্রেফতারকৃতরা হলো আনোয়ার হোসেন প্রকাশ খবির (৫৫) ও মোঃ বাবলু মিয়া (৩০)। উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে ২টি এলজি ও ৩টি একনালা বন্দুক রয়েছে।

এসময় তাদের জিজ্ঞাসাবাদের তথ্য অনুযায়ী লক্ষ্মীপুরের রামগতি বাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধান পায় র‌্যাব।

অভিযানে অবৈধ অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম ও ১টি শর্টগানের গুলি উদ্ধার করা হয়। এ সময় কারখানার মালিক মোঃ রায়হান র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে কৌশলে পালিয়ে যায় বলে র‌্যাবের প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানা যায়।

র‌্যাব ১১’র কোম্পানী কমান্ডার ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোঃ জসিম উদ্দীন চৌধুরী (পিপিএম) জানান, গ্রেফারকৃতদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় কারখানার মালিক মোঃ রায়হান দীর্ঘদিন যাবৎ ওয়ার্কশপের আড়ালে অবৈধ অস্ত্র তৈরি করে আসছে। তার তৈরিকৃত দেশীয় অস্ত্রগুলো নোয়াখালী ও লক্ষ্মীপুরের উপকূলীয় এলাকার জলদস্যু গ্রুপ ও চরাঞ্চলের সন্ত্রাসী বাহিনীর কাছে সরবরাহ করতো। এছাড়াও এই অস্ত্রগুলো সাগরে ডাকাতি, অপহরণ, খুন, ডাকাতি, চাঁদাবাজি, জেলেদের অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায় ও সন্ত্রাসীমূলক কর্মকান্ডে ব্যবহার করা হতো।

র‌্যাব-১১ এর একটি বিশেষ দল দীর্ঘদিন গোয়েন্দা নজরদারী মধ্যমে ৫টি আগ্নেয়াস্ত্র ও বিপুল পরিমান অস্ত্র তৈরির সরঞ্জামসহ আসামীদেরকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
লক্ষ্মীপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর
//