ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে প্রবাসীর মৃত্যু! লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলেন নির্বাহী কর্মকর্তা লক্ষ্মীপুরে করোনা রোগী ৩৭ জন : নতুন করে শিশুসহ আক্রান্ত ৩ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের মারা যাওয়া তরুণের করোনা নেগেটিভ, তিন ভাই বোনের পজেটিভ লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল এডভোকেট নয়ন লক্ষ্মীপুরে ত্রাণের সাথে ঘরও পেল লুজি মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ বিভিন্ন থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের ভিডিও কনফারেন্স লক্ষ্মীপুরে আরো ৩ জনের করোনা পজেটিভ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? লক্ষ্মীপুরে ধান কেটে কৃষকের ঘরে পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ লক্ষ্মীপুরে ২০০০ পরিবার পেল উপহার সামগ্রী কমলনগরে করোনা উপসর্গে একজনের মৃত্যু, এক বাড়ি লকডাউন ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিলো ছাত্রলীগ, কৃষকের মুখে হাসি ভবানীগঞ্জে কর্মহীন পরিবহণ শ্রমিকদের মাঝে সদর এমপি’র ত্রাণ বিতরণ করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়ালো লক্ষ্মীপুরে লকডাউন অবস্থায় অসুস্থ যুবকের মৃত্যু : নমুনা সংগ্রহ
  • শুক্রবার   ০৫ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২২ ১৪২৭

  • || ১২ শাওয়াল ১৪৪১

১১৩

সিসি ক্যামেরা বসিয়েও বন্ধ হচ্ছে না অনিয়ম: প্রধান বিচারপতি

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ২ ডিসেম্বর ২০১৯  

সিসি ক্যামেরা বসিয়েও সুপ্রিম কোর্টের এফিডেভিট শাখার অনিয়ম বন্ধ করতে না পারায় হতাশা ব্যক্ত করেছেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। 

সোমবার নির্ধারিত মামলার শুনানিকে কেন্দ্র করে ৫ সদস্যের আপিল বেঞ্চে এ হতাশা প্রকাশ করেন তিনি। 

এদিন মামলার শুনানি করতে গিয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আদালতকে বলেন, আজ একটি মামলা আপিল বিভাগের কার্যতালিকায় তিন নম্বর সিরিয়ালে থাকার কথা। কিন্তু অদৃশ্যভাবে তা চলে গেছে ৮৯ নম্বর সিরিয়ালে।

কেন ও কীভাবে এমনটি হলো তা আপিল বিভাগের কাছে জানতে চেয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল।

অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, মামলার কার্যতালিকা উপর-নিচ করে অনেকেই কোটিপতি হয়ে গেছেন।

তখন প্রধান বিচারপতি বলেন, এফিডেভিট শাখা কক্ষে সিসি ক্যামেরা বসালাম। এখন সবাই বাইরে এসে এফিডেভিট করে। কিন্তু সিসি ক্যামেরা বসিয়েও অনিয়ম রুখতে পারছি না। এটা খুবই হতাশাজনক।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রপক্ষের অনেক আইনজীবীও আদালতে আসেন না। বেতন বেশি হওয়ার কারণে এমন হচ্ছে। বেতন কম হলে তারা ঠিকই কষ্ট করে আদালতে আসতেন।

এ সময় প্রধান বিচারপতি তাৎক্ষণিকভাবে এক আদেশে ডেপুটি রেজিস্টার মেহেদী হাসানকে আপিল বিভাগে তলব করে। 

মামলার সিরিয়াল করা নিয়ে মেহেদী হাসানের ব্যাখ্যায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন আপিল বিভাগ। এ সময় ডেপুটি রেজিস্টারকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেষ দেন প্রধান বিচারপতি।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
//