ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুরে শিশু হত্যার দায়ে মা আটক জেলা প্রশাসকের বিরুদ্ধে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ অটোরিক্সা বন্ধে ট্রাফিক পুলিশের প্রচারণা মা ইলিশ রক্ষায় জেলেদের মধ্যে চাল বিতরণ ওসি ইকবাল হোসেনের বিদায় সংবর্ধনা স্বেচ্ছায় অবসর নিয়েও স্বপদে বহাল শরীর চর্চা শিক্ষক প্রশাসনের কাজে খুশি হয়ে শ্রমিকদের আনন্দ মিছিল সাদা ছড়ি ব্যবহার করি, নিশ্চিন্তে পথ চলি লক্ষ্মীপুরে জাতীয় স্যানিটেশন মাস ও বিশ্ব হাত দোয়া দিবস পালিত ডেঙ্গু কেড়ে নিলো ব্যবসায়ীর প্রাণ ২০২৩ বিশ্বকাপের আয়োজক হতে পারে বাংলাদেশ! সম্রাটের ১০ দিনের রিমান্ড আবরার হত্যাকাণ্ডকে ইস্যু বানাতে চাচ্ছে বিএনপি: কাদের বিশ্বে ৭০ কোটি শিশু পুষ্টিহীনতায় ভুগছে ইরান ও সৌদিকে সরাসরি আলোচনায় বসার প্রস্তাব ইমরান খানের নতুন প্রজন্মকে পরিচ্ছন্ন দেশ গড়ার আহ্বান ঢাকায় হচ্ছে আরো দুই মেট্রোরেল দুই মাসেও সন্ধান মেলেনি স্বজনদের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকার,আটক ৬ চর লরেঞ্জ ইউপি সদস্য নির্বাচনে ইসমাইল হোসেনের জয়

বুধবার   ১৬ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ১ ১৪২৬   ১৬ সফর ১৪৪১

২৪৯

সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের দায়িত্ব সরকারের

প্রকাশিত: ১১ নভেম্বর ২০১৮  

অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন,নির্বাচন অপরিহার্য। গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থায় নির্বাচনের কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু সে নির্বাচন অবশ্যই সুষ্ঠু হতে হবে। সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রধান উপাদান হলো দুটি। এক. আগ্রহী সব রাজনৈতিক দলের নির্বিঘ্ন অংশগ্রহণ। দুই. নির্বাচনে ভোটারদের নির্বিঘ্নে ভোটদান। এই দুটি বিষয় নিশ্চিত করার দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে।

সরকারকে এই দায়িত্ব নিতে হবে দুটি কারণে। এক. সরকার রাষ্ট্রক্ষমতায় আছে। দুই. সরকারি দলও নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। তাই নির্বাচনে যাতে যথার্থ প্রতিদ্বন্দ্বী থাকে এবং প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়, সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে সরকারকেই। এটা নিশ্চিত করা না হলে বা নিশ্চিত করা না গেলে যে নির্বাচন হবে, তাতে যাঁরাই বিজয়ী হবেন, সে বিজয় কোনো গৌরব বয়ে আনবে না। তা ছাড়া, তেমন একটি নির্বাচনে বিজয়ী বা নির্বাচিতদের প্রতি জনগণের আস্থায়ও ঘাটতি পড়বে।

গণতান্ত্রিক শাসনপদ্ধতির অন্যতম প্রধান বিষয় হচ্ছে জবাবদিহি। নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে সেই নির্বাচনে যাঁরা নির্বাচিত হন, জনগণের প্রতি তাঁদের জবাবদিহির ব্যাপার থাকে না। আর জবাবদিহি না থাকলে সংসদীয় পদ্ধতির শাসনব্যবস্থা কার্যত অচল হয়ে পড়ে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে সরকার, সরকারি দল ও সব রাজনীতিকের উচিত হবে এই বিষয়গুলো মনে রাখা এবং একটি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সব প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া। সেসব পদক্ষেপ নেওয়া না হলে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। আর সুষ্ঠু নির্বাচন না হলে গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থা এগিয়ে নেওয়াও অসম্ভব হয়ে পড়বে। 

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
//