ব্রেকিং:
মুখোষধারীদের স্থান নেই লক্ষ্মীপুর কলেজ ছাত্রলীগে রামগঞ্জে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৮ ইউপি সদস্যের অনাস্থা মায়ের কোলে ফিরেই সুখবর পেলেন ক্রিকেটার হাসান হলি গার্লস স্কুলের পিঠা উৎসব অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সাংবাদিকের উপর হামলা কারীদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে,, সাংবাদিক দম্পত্তির ওপর হামলার ঘটনায় বিচার দাবি করছে বিএমএসএফ কমলনগরের ল্যান্স কর্পোরাল খোকনের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন মাদকসেবী ও ব্যবসায়ীদের কোন ছাড় নয় হিন্দি সিরিয়ালে আসক্তি কাটানোর দারুণ উপায় ইউক্রেনের প্লেন বিধ্বস্তের ঘটনায় নতুন তথ্য দিল রাশিয়া প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা পেল ২৬ পরিবার চীনে প্রাণঘাতী নতুন ভাইরাস, শাহজালাল বিমানবন্দরে সতর্কতা পেছালো দুই সিটির নির্বাচন চোরাকারবারিদের ধরলেও তদন্তের ক্ষমতা নেই কাস্টমসের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পিছিয়ে ৩ ফেব্রুয়ারি ফের নামছে হাড় কাঁপানো শীত দেশের খাদ্য-পুষ্টির চাহিদা পূরণে উদ্ভিদের গুরুত্ব অপরিসীম পাকিস্তান সফরে টাইগারদের দল ঘোষণা এক ফুলকপিতে ১০ মারাত্মক রোগ মুক্তি! বিশ্বের সবচেয়ে বড় কেক, দৈর্ঘ্যে সাড়ে ছয় কিলোমিটার!

সোমবার   ২০ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৬ ১৪২৬   ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

৩৪৯

সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের দায়িত্ব সরকারের

প্রকাশিত: ১১ নভেম্বর ২০১৮  

অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন,নির্বাচন অপরিহার্য। গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থায় নির্বাচনের কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু সে নির্বাচন অবশ্যই সুষ্ঠু হতে হবে। সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রধান উপাদান হলো দুটি। এক. আগ্রহী সব রাজনৈতিক দলের নির্বিঘ্ন অংশগ্রহণ। দুই. নির্বাচনে ভোটারদের নির্বিঘ্নে ভোটদান। এই দুটি বিষয় নিশ্চিত করার দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে।

সরকারকে এই দায়িত্ব নিতে হবে দুটি কারণে। এক. সরকার রাষ্ট্রক্ষমতায় আছে। দুই. সরকারি দলও নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। তাই নির্বাচনে যাতে যথার্থ প্রতিদ্বন্দ্বী থাকে এবং প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়, সে বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে সরকারকেই। এটা নিশ্চিত করা না হলে বা নিশ্চিত করা না গেলে যে নির্বাচন হবে, তাতে যাঁরাই বিজয়ী হবেন, সে বিজয় কোনো গৌরব বয়ে আনবে না। তা ছাড়া, তেমন একটি নির্বাচনে বিজয়ী বা নির্বাচিতদের প্রতি জনগণের আস্থায়ও ঘাটতি পড়বে।

গণতান্ত্রিক শাসনপদ্ধতির অন্যতম প্রধান বিষয় হচ্ছে জবাবদিহি। নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে সেই নির্বাচনে যাঁরা নির্বাচিত হন, জনগণের প্রতি তাঁদের জবাবদিহির ব্যাপার থাকে না। আর জবাবদিহি না থাকলে সংসদীয় পদ্ধতির শাসনব্যবস্থা কার্যত অচল হয়ে পড়ে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে সরকার, সরকারি দল ও সব রাজনীতিকের উচিত হবে এই বিষয়গুলো মনে রাখা এবং একটি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সব প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া। সেসব পদক্ষেপ নেওয়া না হলে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। আর সুষ্ঠু নির্বাচন না হলে গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থা এগিয়ে নেওয়াও অসম্ভব হয়ে পড়বে। 

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
//