ব্রেকিং:
মুখোষধারীদের স্থান নেই লক্ষ্মীপুর কলেজ ছাত্রলীগে রামগঞ্জে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৮ ইউপি সদস্যের অনাস্থা মায়ের কোলে ফিরেই সুখবর পেলেন ক্রিকেটার হাসান হলি গার্লস স্কুলের পিঠা উৎসব অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সাংবাদিকের উপর হামলা কারীদের ধরতে পুলিশের অভিযান চলছে,, সাংবাদিক দম্পত্তির ওপর হামলার ঘটনায় বিচার দাবি করছে বিএমএসএফ কমলনগরের ল্যান্স কর্পোরাল খোকনের রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন মাদকসেবী ও ব্যবসায়ীদের কোন ছাড় নয় হিন্দি সিরিয়ালে আসক্তি কাটানোর দারুণ উপায় ইউক্রেনের প্লেন বিধ্বস্তের ঘটনায় নতুন তথ্য দিল রাশিয়া প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা পেল ২৬ পরিবার চীনে প্রাণঘাতী নতুন ভাইরাস, শাহজালাল বিমানবন্দরে সতর্কতা পেছালো দুই সিটির নির্বাচন চোরাকারবারিদের ধরলেও তদন্তের ক্ষমতা নেই কাস্টমসের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পিছিয়ে ৩ ফেব্রুয়ারি ফের নামছে হাড় কাঁপানো শীত দেশের খাদ্য-পুষ্টির চাহিদা পূরণে উদ্ভিদের গুরুত্ব অপরিসীম পাকিস্তান সফরে টাইগারদের দল ঘোষণা এক ফুলকপিতে ১০ মারাত্মক রোগ মুক্তি! বিশ্বের সবচেয়ে বড় কেক, দৈর্ঘ্যে সাড়ে ছয় কিলোমিটার!

সোমবার   ২০ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৬ ১৪২৬   ২৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

২৯৮

৪৮ তম শহরে ভ্রমণ কন্যারা

প্রকাশিত: ৩০ জানুয়ারি ২০১৯  

‘নারীর চোখে বাংলাদেশ’ শ্লোগানে স্ক্রুটি চড়ে সারাদেশ বেড়ানো ভ্রমণ কন্যারা মঙ্গলবার দেশের ৪৮তম শহর হিসেবে পাবনায় পৌঁছেছে।

ট্রাভেলটস অব বাংলাদেশ নামের সংগঠনের ব্যানারে ভ্রমণ কন্যারা হচ্ছেন, ডা. সাকিয়া হক, ডা. মানসী সাহা, সিলভী রহমান ও শামসুন নাহার সুমা। এদের সহযোগীতা করছেন পাবনার মেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তাসলিমা খাতুনসহ বেশ কয়েকজন।

তারা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের মাঝে নারীর ক্ষমতায়ন, বয়ো:সন্ধিকালীন সমস্যা ও সমাধান, নিজেকে সুরক্ষার কৌশল, মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, পর্যটন কেন্দ্রগুলোর ইতিহাস ঐতিহ্য তুলে ধরে আলোচনা ও ভিডিও প্রদর্শন করছেন। তাদের উপস্থিতি ও নারী জাগরণের বার্তা নিয়ে জেলায় জেলায় ঘুরে বেড়ানোর জন্য শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা শুভেচ্ছা জানান।

ভ্রমণ কন্যারা পাবনা ডিসি মো. জসিম উদ্দিনের সঙ্গে সাক্ষাত করে তাদের আগমণ বার্তা পৌঁছে দেন। ডিসি তাদের উদ্যোগকে অভিনন্দন ও সার্বিক সহযোগিতা করেন। এরপর ভ্রমণ কন্যারা পাবনা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। প্রেস ক্লাবের নেতারা তাদের অভিনন্দন জানান।

ভ্রমণ কন্যা ডা. মানসী সাহা জানান- আমরা দুই জন ঢাকা মেডিকেল কলেজ এবং দুইজন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লেখা পড়া শেষ করেছি। এই কার্যক্রম ২৭ নভেম্বর ২০১৬ সালে শুরু করেছি। আমাদের গ্রুপে এখন সদস্য সংখ্যা ২৭ হাজার। এ পর্যন্ত ৪৮ জেলা ভ্রমণ করলাম। পর্যাক্রমে সব জেলা শেষ করব।

ভ্রমণ কন্যা ডা. সাকিয়া হক বলেন, আমাদের তেমন কোন সমস্যা হয় না। হালকা কিছু সমালোচনা, ইভটিজিং, আর চোখে তাকানো ছাড়া তেমন কোন সমস্যা হয় না। তবে সহযোগীতা ব্যাপকভাবে পাচ্ছি। বাংলাদেশ একটি সুন্দর ও সম্ভাবনাময় দেশ। আমরা আশাবাদী এদেশের নারী জাগরণ ও দ্রুত উন্নয়ন নিয়ে।

সিলভী রহমান বলেন, আমরা বাংলাদেশকে নিয়ে একটি নতুন পর্যটনের স্বপ্ন দেখি। যেখানে মেয়েরা এবং বিদেশিরা স্বাচ্ছন্দে বাংলাদের প্রকৃতি উপভোগ করবে।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
//