ব্রেকিং:
করোনার ওষুধ আবিষ্কার, বাজারে ছাড়ার অনুমতি! দুই হাজার ৪৬ জনকে নিয়োগ দেবে বাংলাদেশ ব্যাংক বাংলাদেশে অবস্থানরত চাইনিজদের কি করা উচিত ?? রামগঞ্জে ভ্রাম্যমান সমবায় প্রশিক্ষণ ধর্মীয় শিক্ষা নিশ্চিত করতে ‘মশিগশি’ প্রকল্পের কর্মশালা রামগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই বাছাই কার্যক্রম স্থগিত সদর সার্কেলের এএসপি’র বিদায় সংবর্ধণা রামগঞ্জ থানার ওসির ব্যতিক্রমি উদ্যেগ ট্রলি চাপায় চালকের করুণ মৃত্যু মায়ের কাছে চিঠি লিখলো কেয়ার এডুকেশনের শিক্ষার্থীরা কমলনগরে প্রতিবন্ধিদের মাঝে হুইল চেয়ার বিতরণ কিশোরী গণধর্ষণ মামলায় তিন আসামি গ্রেপ্তার খালেদার কয়লাখনি দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠন ২৯ মার্চ করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১,৮৬৮ টাকা-পয়সা নয়, ওদের টার্গেট ছোট যানবাহন মার্চ থেকেই ‘অ্যাডভেঞ্চার অফ সুন্দরবন’র যাত্রা শুরু করোনাভাইরাস কেড়ে নিলো উহান হাসপাতালের পরিচালককেও হত্যার ভয় দেখিয়ে মাদরাসাছাত্রকে বলাৎকার, ধরা খেলেন শিক্ষক বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করলেন প্রধানমন্ত্রী সন্তান বিক্রি করে অপহরণ নাটক সাজান বাবা!
  • মঙ্গলবার   ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ||

  • ফাল্গুন ৬ ১৪২৬

  • || ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

৫২৯

৬ কি.মি রাস্তা জুড়ে বেহাল দশা, ভোগান্তিতে ২ লক্ষাধিক জনগন

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ১৫ জানুয়ারি ২০২০  

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার জকসিন থেকে ওয়াবদা অফিস পাকা রাস্তার মাঝে মাঝে কার্পেটিং উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় রাস্তাটির এখন বেহাল দশা। দীর্ঘদিন রাস্তাটি সংস্কার না করায় দিন দিন বাড়ছে দুর্ভোগ।

স্থানীয়রা মতে, এই রাস্তাটি সংস্কার করা না হলে রাস্তাটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। রাস্তাটি বেহাল দশাতে পরিনত হওয়া সংস্কার করার কোন উদ্যোগ গ্রহন করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

এতে প্রতিনিয়তই স্কুলের শিক্ষার্থী, যানবাহন চালক, পথচারীসহ সাধারণ মানুষের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। জানা গেছে, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ১৫ নং লাহারকান্দী, ১৭ নং ভবানীগঞ্জ,১৯ নং তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নের এই পাকা রাস্তাটি প্রায় ০৬ কিলোমিটার।

রাস্তার মাঝে মাঝে কার্পেটিং উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এই রাস্তা দিয়ে লক্ষ্মীপুর প্রানকেন্দ্র সদরে, জকসিন বাজরে, ভবানীগঞ্জ বাজারে, চৌরাস্তা বাজারে, মান্দারী বাজারে, প্রায় ২০/২৫ টি গ্রামের মানুষের প্রতিনিয়তই চলাচল করতে হয়। এই রাস্তাটি এলাকার মানুষের চলাচলের জন্য একমাত্র পথ হওয়ায় চরম দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে তাদের।

এই রাস্তার বেহাল দশার কারনে দিন দিন বাড়ছে দূর্ভোগ। শুকনো মৌসুমে চলাচল করা গেলেও চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় বর্ষা মৌসুমে। দিনে কিংবা রাতে চলাচলের সময় রাস্তার ছোট-বড় গর্তে উল্টে পড়তে হয় ভ্যানগাড়ী, সাইকেলসহ ছোট বড় যানবাহন। তবু এই রাস্তাটি সংস্কার করার কোন উদ্যোগ গ্রহন করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। দ্রুত এই রাস্তাটি সংস্কার করা হলে ওই এলাকার ২০/২৫ টি গ্রামের মানুষ এই দূর্ভোগ থেকে রক্ষা পাবে। তাই দ্রুত এই রাস্তাটি সস্কার করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীরা।

স্থানীয় সিনজি চালক বাবুল হোসেন , মনির, সোহেল, স্বপন আরো অনেকেই জানান, বর্তমানে এই রাস্তার বেহলা দশা। রাস্তার মাঝে মাঝে পাকার কারপেটিং উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তে সৃষ্টি হয়েছে।

রাস্তাটি সংস্কার না করায় দিন দিন আমাদের দুর্ভোগ বেড়েই চলেছে। রাতে বা দিনে যে কোন সময়ে গাড়ী ইঞ্জিন বিকল হয়ে বা গাড়ী উল্টে দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। দ্রুত এই রাস্তাটি সংস্কার করা প্রয়োজন বলে মনে করছেন তারা। রাস্তাটি দ্রুত সংস্কারের দাবী সাধারন মানুষের,যথাযত কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
লক্ষ্মীপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর
//