ব্রেকিং:
স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে প্রতারণা লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে প্রবাসীর মৃত্যু! লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলেন নির্বাহী কর্মকর্তা লক্ষ্মীপুরে করোনা রোগী ৩৭ জন : নতুন করে শিশুসহ আক্রান্ত ৩ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের মারা যাওয়া তরুণের করোনা নেগেটিভ, তিন ভাই বোনের পজেটিভ লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল এডভোকেট নয়ন লক্ষ্মীপুরে ত্রাণের সাথে ঘরও পেল লুজি মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ বিভিন্ন থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের ভিডিও কনফারেন্স লক্ষ্মীপুরে আরো ৩ জনের করোনা পজেটিভ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? লক্ষ্মীপুরে ধান কেটে কৃষকের ঘরে পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ লক্ষ্মীপুরে ২০০০ পরিবার পেল উপহার সামগ্রী কমলনগরে করোনা উপসর্গে একজনের মৃত্যু, এক বাড়ি লকডাউন ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিলো ছাত্রলীগ, কৃষকের মুখে হাসি ভবানীগঞ্জে কর্মহীন পরিবহণ শ্রমিকদের মাঝে সদর এমপি’র ত্রাণ বিতরণ করোনায় মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৯২ হাজার ছাড়ালো
  • বৃহস্পতিবার   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৯ ১৪২৭

  • || ০৫ সফর ১৪৪২

৬২২

৬ কি.মি রাস্তা জুড়ে বেহাল দশা, ভোগান্তিতে ২ লক্ষাধিক জনগন

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ১৫ জানুয়ারি ২০২০  

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার জকসিন থেকে ওয়াবদা অফিস পাকা রাস্তার মাঝে মাঝে কার্পেটিং উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় রাস্তাটির এখন বেহাল দশা। দীর্ঘদিন রাস্তাটি সংস্কার না করায় দিন দিন বাড়ছে দুর্ভোগ।

স্থানীয়রা মতে, এই রাস্তাটি সংস্কার করা না হলে রাস্তাটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। রাস্তাটি বেহাল দশাতে পরিনত হওয়া সংস্কার করার কোন উদ্যোগ গ্রহন করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

এতে প্রতিনিয়তই স্কুলের শিক্ষার্থী, যানবাহন চালক, পথচারীসহ সাধারণ মানুষের ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। জানা গেছে, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ১৫ নং লাহারকান্দী, ১৭ নং ভবানীগঞ্জ,১৯ নং তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নের এই পাকা রাস্তাটি প্রায় ০৬ কিলোমিটার।

রাস্তার মাঝে মাঝে কার্পেটিং উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এই রাস্তা দিয়ে লক্ষ্মীপুর প্রানকেন্দ্র সদরে, জকসিন বাজরে, ভবানীগঞ্জ বাজারে, চৌরাস্তা বাজারে, মান্দারী বাজারে, প্রায় ২০/২৫ টি গ্রামের মানুষের প্রতিনিয়তই চলাচল করতে হয়। এই রাস্তাটি এলাকার মানুষের চলাচলের জন্য একমাত্র পথ হওয়ায় চরম দুর্ভোগের মধ্য দিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে তাদের।

এই রাস্তার বেহাল দশার কারনে দিন দিন বাড়ছে দূর্ভোগ। শুকনো মৌসুমে চলাচল করা গেলেও চরম দুর্ভোগে পড়তে হয় বর্ষা মৌসুমে। দিনে কিংবা রাতে চলাচলের সময় রাস্তার ছোট-বড় গর্তে উল্টে পড়তে হয় ভ্যানগাড়ী, সাইকেলসহ ছোট বড় যানবাহন। তবু এই রাস্তাটি সংস্কার করার কোন উদ্যোগ গ্রহন করেনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। দ্রুত এই রাস্তাটি সংস্কার করা হলে ওই এলাকার ২০/২৫ টি গ্রামের মানুষ এই দূর্ভোগ থেকে রক্ষা পাবে। তাই দ্রুত এই রাস্তাটি সস্কার করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীরা।

স্থানীয় সিনজি চালক বাবুল হোসেন , মনির, সোহেল, স্বপন আরো অনেকেই জানান, বর্তমানে এই রাস্তার বেহলা দশা। রাস্তার মাঝে মাঝে পাকার কারপেটিং উঠে গিয়ে ছোট-বড় গর্তে সৃষ্টি হয়েছে।

রাস্তাটি সংস্কার না করায় দিন দিন আমাদের দুর্ভোগ বেড়েই চলেছে। রাতে বা দিনে যে কোন সময়ে গাড়ী ইঞ্জিন বিকল হয়ে বা গাড়ী উল্টে দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। দ্রুত এই রাস্তাটি সংস্কার করা প্রয়োজন বলে মনে করছেন তারা। রাস্তাটি দ্রুত সংস্কারের দাবী সাধারন মানুষের,যথাযত কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
লক্ষ্মীপুর বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর
//