ব্রেকিং:
চার বছর পর সচিবদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী মাওলানা ত্বহার হোয়াটসঅ্যাপ-ভাইভার অন; বন্ধ মোবাইল ফোন কে এই মাওলানা ত্বহার ২য় স্ত্রী সাবিকুন নাহার? আওয়ামীলীগের ধর্মীয় উন্নয়নকে ব্যাহত করতে ত্বহা ষড়যন্ত্র স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে প্রতারণা লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে প্রবাসীর মৃত্যু! লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলেন নির্বাহী কর্মকর্তা লক্ষ্মীপুরে করোনা রোগী ৩৭ জন : নতুন করে শিশুসহ আক্রান্ত ৩ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের মারা যাওয়া তরুণের করোনা নেগেটিভ, তিন ভাই বোনের পজেটিভ লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল এডভোকেট নয়ন লক্ষ্মীপুরে ত্রাণের সাথে ঘরও পেল লুজি মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ বিভিন্ন থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের ভিডিও কনফারেন্স লক্ষ্মীপুরে আরো ৩ জনের করোনা পজেটিভ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? লক্ষ্মীপুরে ধান কেটে কৃষকের ঘরে পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ লক্ষ্মীপুরে ২০০০ পরিবার পেল উপহার সামগ্রী
  • মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৮ ১৪৩১

  • || ১৫ মুহররম ১৪৪৬

দায়সারাভাবে চলছে ২২ কোটি টাকা বরাদ্দের সংস্কারকাজ!

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

লক্ষ্মীপুরের প্রায় ২২ কোটি টাকা বরাদ্দের ১৯ কিলোমিটার একটি সড়কের সংস্কারকাজ দায়সারাভাবে চলছে। এর মধ্যে হাজীগঞ্জ-রামগঞ্জ-লক্ষ্মীপুরের প্রায় আট কিলোমিটার সড়কে বেস্টেফ ওয়ান (৭০ শতাংশ পাথর ও ৩০ শতাংশ বালু) ব্যবহার করে রোলারের মাধ্যমে সমতল করার কথা থাকলেও তা মানা হচ্ছে না।

পুরনো সড়কটির কার্পেটিং উল্টিয়ে তা পুনরায় সমতল করা হচ্ছে। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তদারকির দায়িত্বে থাকা সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তাদের যোগসাজশে এ অনিয়ম চলছে।

অভিযোগ রয়েছে, এরই মধ্যে দায়সারাভাবে কাজ করে বরাদ্দের একাংশের টাকা উত্তোলন করে নিয়েছেন ঠিকাদার।এদিকে গত সোমবার সন্ধ্যায় লক্ষ্মীপুর পৌরসভার জেলেপাড়ার লোকজন সড়কটির সংস্কারকাজে অনিয়ম দেখে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। তাঁরা সড়কটির কাজ বন্ধ করে দেন।

এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা লক্ষ্মীপুর সড়ক ও জনপথ কার্যালয়ের উপসহকারী প্রকৌশলী আমির খান স্থানীয়দের তোপের মুখে পড়েন। একপর্যায়ে তিনি কাজ বন্ধ করে দিয়ে কৌশলে সটকে পড়েন।

জেলা সড়ক ও জনপথ কার্যালয় সূত্র জানায়, গত বছর হাজীগঞ্জ-রামগঞ্জ-লক্ষ্মীপুরের ১৯ কিলোমিটার সড়ক সংস্কারের জন্য সরকার ২১ কোটি ৯২ লাখ ৩৩ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়। কাজ পায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান শহীদ ব্রাদার্স ও ইউনুস অ্যান্ড ব্রাদার্স জেবি।

মার্চের মধ্যে কাজটি সম্পন্ন করার নির্দেশনা রয়েছে। প্রায় আট কিলোমিটার সড়কে ছয় ইঞ্চি বেস্টেফ ওয়ান ও ৫০ মিলিমিটার বাইন্ডার দেওয়ার কথা রয়েছে। এ ছাড়া সড়কের দুই পাশে মাটি ভরাটের কথা আছে।

গত মঙ্গলবার ওই সড়কের পালেরহাটে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, খননযন্ত্র দিয়ে পুরনো সড়কটি উল্টিয়ে কার্পেটিং ভেঙে বালু ছিটিয়ে রোলারের মাধ্যমে সমতল করা হচ্ছে। এ সময় দুটি রোলার ও একটি পানি ছিটানোর মেশিন দিয়ে কাজ করতে দেখা যায়।

কার্পেটিং করা স্থানে রোলারের চাপে পাথরগুলো গুঁড়ো হয়ে যাচ্ছে। সড়কে ৫০ মিলিমিটার বাইন্ডার থাকার কথা থাকলেও বেশির ভাগ স্থানেই ২০-৩০ মিলিমিটার পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে। ছয় ইঞ্চি বেস্টেফ ওয়ান থাকার কথা থাকলেও তা কোথাও দেখা যায়নি। সড়কের দুই পাশে কোথাও মাটি ফেলা হয়নি।

মাটি ভরাট না করায় কয়েকটি স্থানের ইট সরে গেছে। সংস্কারের পর ১০ ইঞ্চি পুরুত্ব থাকার কথা থাকলেও অনিয়মেই সাড়ে চার ইঞ্চিতে আটকে যাচ্ছে। সংশ্লিষ্টদের তদারকি ছাড়া কার্পেটিংয়ের জন্য বিটুমিন ও পাথর মেশানো মালপত্র কুমিল্লা থেকে আনা হয়। এতে যাতায়াতের সময়ক্ষেপণে মিশ্রিত মালপত্রের গুণগত মান নষ্ট হচ্ছে।

পালেরহাটের ইজারাদার মাকসুদুর রহমান বলেন, পুরনো সড়ক খননযন্ত্র দিয়ে উল্টিয়ে রোলার দিয়ে পিষে দিয়েছে। নতুন পাথর দেওয়ার কথা থাকলেও দেওয়া হয়নি। শুধু যেসব স্থানে গর্ত ছিল সেখানে নতুন পাথর দেওয়া হয়েছে।

কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে সরকারের কোটি কোটি টাকা লুটপাটের পাঁয়তারা চলছে। সরেজমিনে তদন্ত করলে অনিয়মের সত্যতা পাওয়া যাবে।জেলা ছাত্রলীগের সাবেক আহ্বায়ক নজরুল ইসলাম ভুলু বলেন,

‘ব্যস্ততম সড়কটির আট কিলোমিটার এলাকায় পাথর মেকাডম দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কোথাও নিয়ম মানা হয়নি।’ গত মঙ্গলবার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ক কাউসার হোসেনের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করেও সাড়া পাওয়া যায়নি।

জানতে চাইলে লক্ষ্মীপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুব্রত দত্ত বলেন, ‘অনিয়মের অভিযোগে স্থানীয়রা কাজটি বন্ধ করে দিয়েছে। এ নিয়ে ঠিকাদারের সঙ্গে আমি কথা বলেছি। সড়কের কাজ ঠিকভাবে বুঝে নেওয়া হবে।’

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
//