ব্রেকিং:
চার বছর পর সচিবদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী মাওলানা ত্বহার হোয়াটসঅ্যাপ-ভাইভার অন; বন্ধ মোবাইল ফোন কে এই মাওলানা ত্বহার ২য় স্ত্রী সাবিকুন নাহার? আওয়ামীলীগের ধর্মীয় উন্নয়নকে ব্যাহত করতে ত্বহা ষড়যন্ত্র স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ছবি ব্যবহার করে ফেসবুকে প্রতারণা লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গে প্রবাসীর মৃত্যু! লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে দিলেন নির্বাহী কর্মকর্তা লক্ষ্মীপুরে করোনা রোগী ৩৭ জন : নতুন করে শিশুসহ আক্রান্ত ৩ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত করোনার তাণ্ডবে প্রাণ গেল ২ লাখ ১১ হাজার মানুষের মারা যাওয়া তরুণের করোনা নেগেটিভ, তিন ভাই বোনের পজেটিভ লক্ষ্মীপুরে কৃষকের ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দিল এডভোকেট নয়ন লক্ষ্মীপুরে ত্রাণের সাথে ঘরও পেল লুজি মানসম্মত কোন ধাপ অতিক্রম করেনি গণস্বাস্থ্যের কিট পরিস্থিতি ঠিক না হলে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব স্কুল-কলেজ বন্ধ বিভিন্ন থানার পুলিশ সদস্যদের সাথে পুলিশ সুপারের ভিডিও কনফারেন্স লক্ষ্মীপুরে আরো ৩ জনের করোনা পজেটিভ আপনিকি করোনা পরীক্ষায় গণস্বাস্থ্যকেন্দ্রের কিট ব্যবহারের বিপক্ষে? লক্ষ্মীপুরে ধান কেটে কৃষকের ঘরে পৌঁছে দিল ছাত্রলীগ লক্ষ্মীপুরে ২০০০ পরিবার পেল উপহার সামগ্রী
  • মঙ্গলবার ২৩ জুলাই ২০২৪ ||

  • শ্রাবণ ৮ ১৪৩১

  • || ১৫ মুহররম ১৪৪৬

বঙ্গবন্ধুর বুকে গুলিবর্ষণকারী রিসালদার মোসলেহ উদ্দিন ভারতে আটক!

আলোকিত লক্ষ্মীপুর

প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০২০  

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আরেক খুনি রিসালদার (বরখাস্ত) মোসলেম উদ্দিন খান ভারতে ধরা পড়া নিয়ে ধোঁয়াশার সৃষ্টি হয়েছে। কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, রিসালদার মোসলেমকে ভারতীয় গোয়েন্দারা আটক করেছেন। কিন্তু দুই দেশের কর্তৃপক্ষীয় তরফ থেকে কেউই এ সংবাদ নিশ্চিত করেনি।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালও বলেছেন, নিশ্চিত হওয়ার পরই সরকার এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবে। গোয়েন্দা বিভাগ-সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, আনন্দবাজারের প্রতিবেদনের শুরুতে গোয়েন্দাসূত্রের বরাত দিয়ে রিসালদার মোসলেম উদ্দিনের গ্রেফতারের খবরটি দেওয়া হয়। কিন্তু প্রতিবেদনের আরেকটি অংশে অন্য একটি সূত্রের বরাত দিয়ে উল্লেখ করা হয়েছে, ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) মাজেদ আটক হওয়া মাত্রই রিসালদার মোসলেম নিজের মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে গা-ঢাকা দিয়েছেন। তবে এই কর্মকর্তা বলেন, হ্যাঁ, ঠিকই যে, দুই দেশ বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে।

আনন্দবাজার লিখেছে, সম্প্রতি ফাঁসি কার্যকর হওয়া মাজেদ পরিচয় গোপন করে ২০ বছরের বেশি সময় ধরে কলকাতায় পালিয়ে ছিলেন। তার মতো মোসলেম উদ্দিনও ভারতে পালিয়ে ছিলেন এবং উত্তর চব্বিশ পরগনা থেকে তাকে আটক করা হয়ে থাকতে পারে। মাজেদকে জেরা করে বাংলাদেশের গোয়েন্দারা মোসলেম উদ্দিনের ভারতে অবস্থানের তথ্য পান।

আবার অন্য একটি সূত্রের খবরের বরাত দিয়ে একই গণমাধ্যমে উল্লেখ করা হয়েছে, মাজেদ আটক হওয়া মাত্রই নিজের মৃত্যু সংবাদ ছড়িয়ে গা-ঢাকা দিয়েছেন মোসলেম। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট পরিবারের অধিকাংশ সদস্যসহ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার দায়ে মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত যে ছয় আসামি দীর্ঘদিন ধরে পলাতক, তাদের অন্যতম মোসলেম উদ্দিন।

৭৫-এর ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর বাড়িতে হানা দেওয়া দলটির সামনের সারিতে ছিলেন মোসলেম উদ্দিন। অনেকের দাবি, মোসলেম উদ্দিনই গুলি করে হত্যা করেছিলেন বঙ্গবন্ধু মুজিবকে। পলাতক ওই ছয়জনের মধ্যে ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদ এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে গ্রেফতার হওয়ার পর ১১ এপ্রিল মধ্যরাতে কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে তার ফাঁসি কার্যকর হয়।

পুলিশ সদর দফতরের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) মহিউল ইসলাম বলেছেন, ইন্টারপোলের ভারতীয় শাখা ন্যাশনাল সেন্ট্রাল ব্যুরো (এনসিবি) মোসলেম উদ্দিন খানের গ্রেফতার বিষয়ে কোনো তথ্য এখনো বাংলাদেশকে দেয়নি। রিসালদার মোসলেমকে গ্রেফতারের বিষয়ে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ভারতে যোগাযোগ করা হয়েছে কিনা- জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের লোক তো লেগেই আছে। কিন্তু কনফার্ম করে বলতে পারছি না। নিশ্চিত হলে তখন জানাব।’

প্রতিবেদনের একটি অংশে ভারতীয় গোয়েন্দাসূত্রের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার লিখেছে, উত্তর চব্বিশ পরগনার একটি আধাশহরে ইউনানি চিকিৎসক সেজে ভাড়া থাকছিলেন মোসলেম উদ্দিন। লকডাউনের সময় সেখান থেকে মোসলেম উদ্দিনকে বাংলাদেশে আনা সমস্যা হতে পারে। এ বিষয়টি বাংলাদেশের গোয়েন্দারা ভারতীয় গোয়েন্দাদের অবহিত করেন। পরবর্তীতে ভারতীয় গোয়েন্দারা এই খুনিকে সীমান্তের কোনো একটি অরক্ষিত এলাকা দিয়ে বাংলাদেশের গোয়েন্দাদের হাতে তুলে দেন। তবে সরকারিভাবে কিছুই এ বিষয়ে স্বীকার করা হয়নি।

আলোকিত লক্ষ্মীপুর
আলোকিত লক্ষ্মীপুর
//